• মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৬  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

শিরোনাম :

থেরেসা মে : ব্রেক্সিট ইস্যুতে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ভোট জানুয়ারিতে||'নির্বাচনে জনগণের অধিকার নিশ্চিত করতে ব্রিটিশ সরকারের পদক্ষেপ আহ্বান'||রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রস্তাব আলোচনা বর্জন করেছে চীন ও রাশিয়া||৩০০ কোটি টাকায় দুটি রুশ হেলিকপ্টার কিনছে বিজিবি||বরখাস্ত ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ হোসে মরিনহো||সু চি’কে দেওয়া পুরস্কার প্রত্যাহার করল দক্ষিণ কোরিয়া||নির্বাচনি পরিবেশ স্বাভাবিক, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডও বিদ্যমান : সিইসি||জামায়াতের ২২ নেতার ‘ধানের শীষ’ বাতিলে আদালতে রুল||যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে বসেছে বিএনপি   ||প্রতিশোধের রাজনীতি বন্ধের অঙ্গীকার করল বিএনপি 

একটি সুন্দর দেশ গড়ার স্বপ্ন দেখতেন আদনান রিসাদ

  মুহাম্মদ হাসান মাহমুদ ইলিয়াস ০৪ নভেম্বর ২০১৮, ১২:৩০

আদনান
আদনান রিসাদ (ছবি : সম্পাদিত)

ভালো লাগে ছেলেটির লিখতে, ভালো লাগে রক্তদান করতে, সারক্ষণ বিড়ালের সাথে খেলা করতে, ভালো লাগে গিটারে টুংটাং আওয়াজ তুলে মনের সকল ব্যথা ভুলতে। ফুটবল খেলা ছিল তার খুবই প্রিয়। ফুটবল বিশ্বকাপে তিনি ব্রাজিল দলকে পছন্দ করতেন। কোনো অন্যায় দেখলে প্রতিবাদ করার ভাষা তার ছিল, ছিল সাহস।

যখন পুরুষরা মেয়েদের প্রতি অন্যায়মূলক আচরণ করে তখন ছেলেটি সহ্য করতে পারতেন না। তার ভাষায় ‘একে তো বাসে মেয়েদের জন্য সংরক্ষতি আসনে বসে থাকে, তার ওপর আবার উঠতে বললে মেজাজ দেখায়। আমি ভেবে কুল পাই না যে, এরা কি আসলইে পুরুষ, নাকি ভুল করে পুরুষ হয়ে জন্ম নিয়েছে। আল্লাহ্ এদের হেদায়েত দান করুক যেন এরা যর্থাথরূপে মানুষ হয়ে উঠতে পারেন ’

বলছিলাম ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী আদনান রিসাদের কথা। যিনি গেল ২৩ ডিসেম্বর হোস্টেলের সিঁড়ি দিয়ে নামার সময় অসুস্থতা বোধ করেন, এরপর তার গা ঘামতে থাকে। হোস্টেলের বড় ভাইরা মিলে দ্রুত তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিন্তু কোনো চিকিৎসক আর তাকে সুস্থ করে তুলতে পারেননি। আধঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

স্বপ্ন ছিল তার আকাশচুম্বী। তিন ভাই-বোনের মধ্যে দ্বিতীয় হওয়ায় কোনো অভাব ছিল না তার। তবু কিসের যেন বিষন্নতা সদা তার মনের মধ্যে ভর করত। সেটা আর কিছু ছিল না এই ব্যাধিগ্রস্ত সমাজকে নিয়েই ছিল তার মনে সকল কষ্ট। তিনি এ থেকে পরিত্রাণের উপায় নিয়ে ভাবতেন। তার সদা একটি প্রশ্ন ছিল ‘আমরা শেষ কবে হেসেছি? আমরা কি আসলেই সুখী?

তার লেখালেখির সূচনা হয়েছিল ‘বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক সংঘের মাধ্যমে। ‘বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক সংঘ’ তার সুপ্ত প্রতিভা, তার বহুল প্রতিক্ষিত স্বপ্নকে পত্রিকার পাতা, মানুষের দরবারে এনে দিয়েছিল।

তিনি শেষবারের মতো ইত্তেফাকের পাতায় লিখেছিলেন ‘মিলেমিশে থাকুন, ভালো থাকুন’ এই শিরোনামে। এখানে তিনি আমাদের ভালো থাকার আসল চিত্র তুলে ধরেছিলেন। আমাদের ভালো থাকার পথ দেখিয়েছিলেন? কিন্তু সে মানুষটি আর আমাদের মাঝে নেই। তবে আমরা কিভাবে ভালো থাকতে পারি তাকে ছাড়া? কিভাবে ভালো থাকতে পারে বাংলাদেশ?

লেখক : শিক্ষার্থী, দর্শন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড