• বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নেপালের ত্রিভুবনে গবির ইন্টার্ন চিকিৎসকরা

  ইউনুস রিয়াজ, গবি প্রতিনিধি

৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১১:৫৮
গণ বিশ্ববিদ্যালয়

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) ইতিহাসে প্রথম এবং ভেটেরিনারি পড়ুয়া দেশে কোনো বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হতে প্রথমবারের মতো ইন্টার্নশিপের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়ে নেপালের ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভেটেরিনারি অ্যান্ড এনিমেল সায়েন্সেস অনুষদের পঞ্চম ব্যাচের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা।

শনিবার (২৯ এপ্রিল) সকাল ১০.৩৫ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে করে নেপালের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়েছে শিক্ষার্থীরা। নেপালের খ্যাতনামা ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয়ে পঞ্চম ব্যাচের মোট ২৫ জন শিক্ষার্থী ১৫ দিন ইন্টার্ন করবে বলে জানা যায়।

নেপাল থেকে ইন্টার্ন চিকিৎসক শুভংকর চন্দ্র দে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমরাই প্রথমবারের মতো বিদেশে ইন্টার্নশিপ করতে যাচ্ছি। নিজেকে খুবই ভাগ্যবান মনে করছি। গবির ভেটেরিনারি যাত্রা খুব বেশি দিন হয়নি। আমাদের ডিন ও প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি এতো অল্প সময়ে আমাদেরকে বিদেশে ইন্টার্নি করতে পাঠানোর জন্য।

এই বিষয়ে অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জহিরুল ইসলাম খান জানান, ডিন হিসেবে এটা আমার জন্য একটা চ্যালেঞ্জিং বিষয় ছিল। আশা করছি ছেলেরা ভালো করবে। সকলের জন্য শুভকামনা রইল।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালের মে মাসে দেশের প্রথম ও একমাত্র বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভেটেরিনারি শিক্ষা শুরু হয়। শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) মাত্র ২৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তির অনুমোদন দেয়। তবে প্রতিষ্ঠার মাত্র দেড় বছরেই ভেটেরিনারি শিক্ষার যাবতীয় প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে পারায় বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন শেষে ইউজিসি আসন সংখ্যা ২৫ থেকে ৫০-এ উন্নীত করে। ইতিমধ্যে চারটি ব্যাচ সফলতার সাথে পাশ করেছে এবং ষোলতম ব্যাচের ভর্তি শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড