• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন

পরিবহন সংকট, ভোগান্তিতে নোবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা

  নোবিপ্রবি প্রতিনিধি ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ১৬:৫৯

নোবিপ্রবি
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটক (ছবি: দৈনিক অধিকার)

শিক্ষার্থী অনুপাতে বাসের সংখ্যা না বাড়ানোর ফলে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) পরিবহন সংকট বেড়েই চলছে। এতে করে ভোগান্তিতে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে থেকে নিয়মিত যাতায়াত করা কয়েক হাজার শিক্ষার্থী।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাসে অংশগ্রহণ ও ক্লাস শেষে বাসায় ফেরার ক্ষেত্রে তারা বাস ব্যবহারের পর্যাপ্ত সুবিধা পাচ্ছে না। ফলে প্রতিদিনের যাত্রা হচ্ছে বাদুড় ঝোলা ঝুলে কিংবা বাসের পাদানিতে ঝুঁকি নিয়ে দাঁড়িয়ে। 

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন, উদ্ভূত এই সমস্যার মূলে রয়েছে বাসের অপর্যাপ্ততা ও ত্রুটিপূর্ণ শিডিউল।

বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত আবাসিক সুবিধা না থাকায় বেশিরভাগ শিক্ষার্থী জেলা শহর মাইজদিতে থাকেন। মাইজদি থেকে যাতায়াত করেই তাদের প্রতিদিনের ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে হয়। শহরে থাকা শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে যাতায়াতের একমাত্র অবলম্বন হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস। কিন্তু শিক্ষার্থী অনুযায়ী পর্যাপ্ত বাস না থাকায় তাদের পড়তে হচ্ছে ভোগান্তিতে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে বারবার অভিযোগ করলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন ইতিবাচক পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। 

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ছবি: দৈনিক অধিকার)

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন শাখায় খোঁজ নিয়ে জানা যায় শিক্ষার্থীদের ব্যবহারের জন্য মোট ১৫ টি বাস রয়েছে। এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭ টি বাস ও বিআরটিসির ৮ টি বাস। 

শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রতি বছর নতুন করে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও বাড়ছে না বাসের সংখ্যা। যার ফলে পরিবহন খাতের এই সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করেছে। আগে দাঁড়িয়ে যেতে পারলেও এখন দাঁড়ানোর সুযোগও পাওয়া যাচ্ছে না। 

শহর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার জন্য যে বাস দেওয়া হয়েছে তাও অপ্রতুল। শহরের প্রথম কয়েকটি স্টপেজেই বাসগুলো পরিপূর্ণ হয়ে যায়, যার ফলে অন্যান্য স্টপেজের শিক্ষার্থীরা বাসে ওঠার সুযোগ পান না। অনেকে ঝুলে ঝুলে যাওয়ার চেষ্টা করেন। যার ফলে অসাবধানতাবশত বড় ধরনের যে কোনো দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। 

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফেরত আসার পথে বাস সংটের কথা পরিবহন শাখায় জানানো হলেও এর পরিত্রাণ মিলে না সব সময়। মাঝে মাঝে বাসের ব্যবস্থা করা হলেও প্রায় সময়েই বাস সংকটের কথা বলে অপারগতা প্রকাশ করা হয়। 

বিশ্ববিদ্যালয়ে বিআরটিসি ডাবল ডেকারের এক চালক নাম না প্রকাশ করা শর্তে জানান, বাসে অতিরিক্ত যাত্রী থাকার কারণে তারা ভয়ে গাড়ি চালান। রাস্তা খারাপ ও অন্যান্য কারণে বাস হেলে যায়, যা বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে এখন গাড়ির টায়ার ডেমেজ হওয়ার ঘটনা বেড়ে গেছে, যা ভোগান্তির মাত্রা বৃদ্ধি করছে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের ছাত্র মাখদুম ফাত্তাহ জানান, আগের তুলনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন বিভাগ দ্বিগুণ হয়েছে। এতে করে বেড়েছে শিক্ষার্থী সংখ্যা। শিক্ষার্থী সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও সে অনুপাতে বাসে সংখ্যা বৃদ্ধি পায়নি, যা এই সমস্যার সৃষ্টি করেছে। 

এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই বিষয়টি নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী আক্ষেপ নিয়েই বলেন বাসে ওঠা নিয়ে এক অসুস্থ প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হয় যা বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করতে পারে। 

পরিবহন সংকট নিরসনের ব্যাপারে প্রশাসনের উদ্যোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. অহিদুজ্জামান জানান, শীঘ্রই নতুন ৪টি বাস বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন শাখায় যুক্ত হবে। চলতি মাসেই ১টি বাস যুক্ত হবে। অচিরেই এই সংকট নিরসন হবে বলে আশ্বস্ত করেন উপাচার্য।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.odhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"নোবিপ্রবি".*')) AND id<>22327 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: info@odhikar.news

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড