• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সেশনজট এড়াতে হাবিপ্রবিতে ৪ মাসে সেমিস্টার

  মাসুদ রানা, হাবিপ্রবি প্রতিনিধি

০৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:০২
হাবিপ্রবি
হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ফাইল ছবি)

করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের দীর্ঘস্থায়ী সেশনজট নিরসনের উপায় হিসেবে ও শিক্ষার্থীদের করোনাকালীন অ্যাকাডেমিক ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে উত্তরবঙ্গের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) সেমিস্টার ৬ মাস থেকে কমিয়ে ৪ মাসে সম্পন্ন ও ৫০ মিনিটের ক্লাস ২০ মিনিট বাড়িয়ে ৭০ মিনিট করার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৮তম অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল এর সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন হাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম কামরুজ্জামান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষসহ অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সম্মানিত সদস্যগণ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের ১৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী তোফাজ্জল হোসেন তপু বলেন, এমন শিক্ষার্থীবান্ধব সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানাই মাননীয় উপাচার্য স্যারকে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই স্যার শিক্ষার্থী বান্ধব উদ্যোগ গ্রহণ করছেন। করোনাকালীন জট এড়াতে ছয় মাসের সেমিস্টার চার মাসের মধ্যে নিয়ে আসা ও তার পাশাপাশি প্রতি ৫০ মিনিটের ক্লাস এর সময়সীমা বাড়িয়ে ৭০ মিনিট করা সুন্দর ও শিক্ষার্থীবান্ধব পরিকল্পনার অংশ। ভবিষ্যতেও মাননীয় উপাচার্য মহোদয় একরকম শিক্ষার্থী বান্ধব উদ্যোগ নিয়ে হাবিপ্রবি কে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবেন আশা করি।

ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৯ ব্যাচের শিক্ষার্থী ইফতেখারুল ইসলাম আলভী বলেন, শিক্ষার্থীবান্ধব এমন উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য মাননীয় উপাচার্য মহোদয়ের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা। করোনার জট ছাড়াও হাবিপ্রবিতে সেশনজট ছিল আগেও। এখন ছয়মাসের সেমিস্টারকে চার মাসের মধ্যে নিয়ে আসা এবং এর পাশাপাশি প্রতি ৫০ মিনিটের ক্লাসের সময়সীমা ২০ মিনিট করে বাড়িয়ে ৭০ মিনিট করা সত্যি সুচিন্তিত পরিকল্পনার ইঙ্গিত দেয়। আমরা শিক্ষার্থীরা এরকম পরিকল্পিত এবং শিক্ষার্থীবান্ধব উদ্যোগ চাই যাতে করে হাবিপ্রবি এগিয়ে যেতে পারবে।

অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল সভায় অন্যান্য সিদ্ধান্তের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা শাখা জানায়, অনলাইন ও অফলাইন উভয় মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাস পরীক্ষা চলমান থাকবে। এ ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০ ও ২০১৯ সালে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থী এবং তাদের সাথে রি-অ্যাড হওয়া শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ক্লাস পরীক্ষা চালু থাকবে। তাদের ক্ষেত্রে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সাপেক্ষে পরবর্তী অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল সম্পন্ন করে অফলাইনে পরীক্ষা ও ক্লাস শুরুর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এছাড়া সকল মাস্টার্স এবং এমবিএ ও অনার্সের লেভেল ৪ (২০১৭ সালে ভর্তিকৃত ও তাদের সাথে রি-অ্যাড) এবং লেভেল ৩ (২০১৮ সালে ভর্তিকৃত ও তাদের সাথে রি-অ্যাড) শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফাইনাল, ব্যবহারিক ক্লাস (যেগুলো হাতে কলমে প্রদর্শন প্রয়োজন) ও মিডটার্ম পরীক্ষা (আলোচনা সাপেক্ষে অনলাইন বা অফলাইনে) সশরীরে অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও সকল তত্ত্বীয় ক্লাস, ব্যবহারিক ক্লাস (যেগুলো হাতে কলমে প্রদর্শনের প্রয়োজন নেই) ও কুইজ পরীক্ষা যথারীতি অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও প্রথমে মাস্টার্স অথবা এমবিএ ও লেভেল ৪ (২০১৭ সালে ভর্তিকৃত ও তাদের সাথে রি-অ্যাড) এবং লেভেল ৩ (২০১৮ সালে ভর্তিকৃত ও তাদের সাথে রি-অ্যাড) এর শিক্ষার্থীদের জন্য হল খুলে দেওয়া হবে।

এ ক্ষেত্রে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল সম্পন্ন করে পরবর্তী ব্যাচসমূহকে পর্যায়ক্রমে হলে উঠানো হবে। হলে উঠতে হলে সংশ্লিষ্ট হলের প্রকৃত আবাসিক শিক্ষার্থী হতে হবে। হলে প্রবেশের সময় হল কর্তৃক ইস্যুকৃত 'রেসিডেন্সিয়াল আইডি কার্ড' প্রদর্শন করতে হবে। কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন কার্ড (কমপক্ষে ১ ডোজ নেয়ার) প্রদর্শন করতে হবে। ১৮, ১৯, ২০ অক্টোবর পর্যায়ক্রমে হলগুলো খুলে দেওয়া ও ২১ অক্টোবর থেকে সশরীরে ক্লাস শুরুর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ওডি/নিমি

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড