• মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জবি বিএনসিসি'র ক্যাডেটদের সার্জেন্ট পদোন্নতি লাভ

  শিক্ষা ডেস্ক

১১ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৪৩
সার্জেন্ট পদোন্নতি লাভ
জবি বিএনসিসি'র ক্যাডেটদের সার্জেন্ট পদোন্নতি লাভ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর (বিএনসিসি), জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্লাটুনের ৬ জন ক্যাডেট ‘সার্জেন্ট’ পদমর্যদা লাভ করেন। এ উপলক্ষে সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুর ১টার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান ও কোম্পানি কমান্ডার পিইউও আতিয়ার রহমান উপাচার্যের অফিস কক্ষে নব পদমর্যাদাপ্রাপ্ত সার্জেন্টদের র‌্যাঙ্ক ব্যাচ পড়িয়ে দেন।

এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বিএনসিসি ক্যাডেটদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিএনসিসি দেশের কাজে সব সময় পাশে থেকে আমাদের সহযোগিতা করে। এই বিএনসিসি দেশ গঠন ও দেশের কল্যাণে কাজ করে যাবে এবং তাদের যে সুশৃঙ্খল প্রশিক্ষণ ও দক্ষ যে জনসমষ্টি আমরা এখান থেকে আশাকরি পাবো। তিনি এর অগ্রগতি ও উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করেন।

এ সময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামালউদ্দিন আহমদ বলেন, বিএনসিসির আজকের এই অর্জনের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

তিনি বলেন, দেশের জন্য বিএনসিসির একটি ঐতিহ্যবাহী ভূমিকা আছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনসিসির যে গতিশীলতা আছে আশাকরি সামনে আরও গতিশীল হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, বিএনসিসি স্বাধীনতার শুরু থেকেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। বিএনসিসি জাতির প্রয়োজনে, দেশের প্রয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বপালন করে থাকে। বিএনসিসির এইধারা দেশে ও দেশের বাইরে অব্যাহত থাকবে বলে তিনি মনে করেন।

কোম্পানি কমান্ডার ও অফিসার ইনচার্জ পিইউও আতিয়ার রহমান বলেন, নতুনরা কর্মে ও দক্ষতায় বিএনসিসি জবি প্লাটুনকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম বয়ে আনবে। বিএনসিসি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজে সব সময় পাশে থাকে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে বলে তিনি মনে করেন।

তিনি আরও বলেন, দেশ ও জাতির ক্রান্তিকালে সেবা প্রদানের জন্য প্রস্তুত থাকা, দুর্যোগ মোকাবিলা, সশস্ত্র বাহিনীর সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করা এবং সরকার অর্পিত অন্য যেকোনো দায়িত্ব পালন করা। বিএনসিসিসহশিক্ষা কার্যক্রম সব সময় একজন শিক্ষার্থীর ওপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। কারণ, স্বেচ্ছাসেবার মানসিকতাই একজন ক্যাডেটের সবচেয়ে বড় শক্তি।

ক্যাডেট ইনচার্জ সার্জেন্ট রাসেল আহমেদ পদন্নোতি পাওয়া সকল ক্যাডেট সদস্যের শুভকামনা জানিয়ে নতুন ক্যাডেট সার্জেন্টদের সঠিকভাবে কাজ করতে বলেন।

ড্রিল ক্যাডেট ইনচার্জ সার্জেন্ট সালমান আহমেদ বলেন, বিএনসিসি একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন যা বাংলাদেশ প্রতিরক্ষা বাহিনী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। বিএনসিসির প্রতিটি ক্যাডেট দেশের জন্য সর্বদা নিবেদিত নাগরিক হিসেবে বেড়ে উঠে। একজন ক্যাডেট দ্বারা কখনো কোন প্রকার অসামাজিক কার্যক্রম হয় না। দক্ষ, আদর্শ, সুশিক্ষিত, সচেতন ও নৈতিক গুণাবলি অর্জন করে বিএনসিসির মাধ্যমে। আধুনিক সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় বিএনসিসি অগ্রণী ভূমিকা পালন করে থাকবে বলে তিনি মনে করেন।

নতুন ক্যাডেট সার্জেন্ট দায়িত্ব পালনে মো. মামুন শেখ, সোহেল রানা, আবু তারেক, তানজিলুর রহমান, রত্না আক্তার, মহিমা নূর ঐশী জবি বিএনসিসির সকল ক্যাডেট সদস্যের সহযোগিতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ন্যাশনাল ক্যাডেট কোরের যাত্রা শুরু হয় ১৯৫৫ সাল থেকে। বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বিএনসিসি ‘২ রমনা ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টার’ এর অধীনে রয়েছে। এতে ৬টি প্লাটুন রয়েছে, যার মধ্যে ৩টি ছেলেদের ও ৩টি মেয়েদের। প্রত্যেক প্লাটুনে ৩৩ জন করে ক্যাডেট আছে।

ওডি/

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড