• রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

'এনআইইটি এখন কারিগ‌রি শিক্ষা বো‌র্ডের এক‌টি ব্র্যান্ড'

  মনিরুল ইসলাম মনি

০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:৩০
এনআইইটির ‘দক্ষতা উন্নয়ন’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় অতিথিরা
এনআইইটির ‘দক্ষতা উন্নয়ন’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় অতিথিরা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

‌দে‌শের কা‌রিগ‌রি শিক্ষা বো‌র্ডের ম‌ধ্যে ন্যাশনাল ইন‌স্টি‌টিউট অব ই‌ঞ্জি‌নিয়া‌রিং অ্যান্ড টেক‌নোলজি‌কে (এনআইইটি) ব্র্যান্ড হি‌সে‌বে আখ্যা দি‌য়ে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের (আড়াইহাজার) সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু ব‌লেন, দে‌শের কা‌রিগ‌রি শিক্ষা‌কে সমৃদ্ধ ও যু‌গোপ‌যোগী ক‌রে দে‌শের বেকার জন‌গোষ্ঠী‌র দক্ষতার উন্নয়ন ঘ‌টি‌য়ে কর্মক্ষম ক‌রে তোলার ল‌ক্ষ্যে কাজ কর‌ছে।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় ন্যাশনাল ইন‌স্টি‌টিউট অব ই‌ঞ্জি‌নিয়া‌রিং অ্যান্ড টেক‌নোলজি‌র (এনআইইটি) নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার ক্যাম্পাসের আয়োজনে শিক্ষার্থী এবং দেশের নামকরা শিল্প কোম্পানির কনসালটেন্টদের সাথে ‘দক্ষতা উন্নয়ন’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি। 

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু

সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু বলেন, বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের শ্রমিকরা অবমূল্যায়িত হচ্ছে। কারণ বাংলাদেশি শ্রমিকরা কোনো কাজ না শিখেই লাখ লাখ টাকা খরচ করে বিদেশে যাচ্ছে। ফলে অন্যান্য দেশের শ্রমিকরা ভালো মজুরি পেলেও বাংলাদেশিরা তাদের থেকে অনেক কম মজুরি পাচ্ছে। এ দিক বিবেচনা করলে এনআই‌ইটি একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছে বলে আমি মনে করি।

শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠীকে কর্মক্ষম করতে এনআইইটির উদ্যোগ তুলে ধরে তিনি বলেন, এনআইইটি ৫০ জন শিক্ষিত বেকার যুবককে প্রশিক্ষণ প্রদান করছে সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে। তারা বিভাগভিত্তিক দক্ষতা উন্নয়নে বিভিন্ন ট্রেডে এদের প্রাতিষ্ঠানিকভাবে বাস্তবতার নিরিখে শিক্ষা প্রদান করছে।

বাংলাদেশের বিশাল জনগোষ্ঠীকে সম্পদ হিসেবে উল্লেখ করে এমপি বাবু বলেন, ১৫ কোটি মানুষের ৩০ কোটি হাতকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে এনআইইটির মতো অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকেও এগিয়ে আসতে হবে। দিনে দিনে আধুনিক প্রযুক্তির সাথে পরিচিত হয়ে শিল্পায়নে তা প্রয়োগ করতে হবে। আর সরকারের এমন গুরুদায়িত্ব নিজেদের কাঁধে নিয়ে দক্ষ জনগোষ্ঠী তৈরি করছে এনআইইটি। 

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, যিনি মিথ্যা বলেন, তার পুরোটাই মিথ্যা এবং সেটি নিজের সাথে মিথ্যা বলা হয়। তেমনিই যতটুকু শিখবে ততটুকুই তোমাদের থাকবে। তুমি ফাঁকি দিলে নিজের সাথেই ফাঁকি দিবে, এতে প্রতিষ্ঠানের কোনো যায়-এসে না। 

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখছেন অতিথিরা

সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে এনআইইটির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল আজিজ বিভিন্ন শিল্প কোম্পানির কনসালটেন্টদের উদ্দেশে বলেন, এমনভাবে আপনাদের পাশে পেলে আমরা দেশের সৃষ্টমান বেকারদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ করে গড়ে তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারব ইনশাল্লাহ। তাহলে সরকারের উন্নয়ন যাত্রায় আমরাও নাম লেখাতে পারব আপনাদের মাধ্যমে। 

তিনি বলেন, শিল্প-কারখানার মালিকরা দক্ষ জনশক্তি চায়। আর সেই লক্ষ্যে আপনাদের পরামর্শ নিয়ে আমরা সেইভাবে তাদের গড়ে তুলে আপনাদের কোম্পানিতে দিতে চাই। মূলত দেশের বেকারত্ব সমস্যা দূর করতেই আমরা দক্ষতার উন্নয়ন ঘটাচ্ছি।  

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এনআইইটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল আলিম বলেন, আমরা দেশের নামকরা বিভিন্ন ফ্যাক্টরি মালিকদের সাথে বসে ধারণা নিচ্ছি তাদের কেমন দক্ষতাসম্পন্ন জনবল লাগবে। আমরা তাদের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে শিক্ষার্থীদের সেইভাবে গড়ে তুলছি, যাতে শিল্প মালিকরা দক্ষ জনশক্তি পেয়ে তাদের উৎপাদন কাজ ভালোভাবে সম্পাদন করতে পারে। আর সে জন্য ইতোমধ্যেই আমরা এসব শিক্ষার্থীদের নতুন নতুন প্রযুক্তির সাথে সমন্বয় ঘটাচ্ছি। 

ইঞ্জিনিয়ার আলিম বলেন, আমরা এমনভাবে শিক্ষার্থীদের তৈরি করছি যাতে আপনাদের কাজে লাগে। সেখানে যেন দক্ষতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন না ওঠে। 

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, লক্ষ্য স্থির করে সৎ থাকতে হবে। সততার মূল্যায়ন অবশ্যই পাবে। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের সকল প্রকার নেশা দ্রব্য থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) সেইপ-পিকেএসফের প্রোগ্রাম অফিসার আনজুমান আরা বলেন, সেইপ-পিকেএসফ এনআইইটির দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্পের অংশীদার হতে পেরে গর্বিত। পিকেএসএফ বর্তমানে ১২ হাজার বেকার যুবকদের দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করছে। আর আমাদের এ প্রকল্প চলবে ২০২০ সাল পর্যন্ত।  

এনআইইটির অধ্যক্ষ মঞ্জুরুল আলম বলেন, আড়াইহাজার ক্যাম্পাস থেকে দুটি ট্রেডে বিনা মূল্যে ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। কারিগরি শিক্ষার উন্নয়নে দেশের শিল্প প্রতিষ্ঠানে দক্ষ জনবল দেওয়াই আমাদের উদ্দেশ্য।

মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন—এনআইইটির প্রধান কো অর্ডিনেটর মাহমুদ হাসান প্রধান, এক্সিকিউটিভ জাকির হোসেন, গোলাম আজম। 

এর আগে দেশের নামকরা উৎপাদনশীল প্রতিষ্ঠানগুলোর পরমর্শকদের হাতে এনআইইটির তরফ থেকে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন অতিথিরা। 

অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশে দেশের নামকরা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান থেকে আসা কনসালটেন্টরা বিভিন্ন পরামর্শ দেন এবং আয়োজকদের উদ্দেশ্যে দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য তুলে ধরেন। 

প্রসঙ্গত, পিকেএসএফ-সেইপ প্রকল্পের আওতায় এনআইইটির উদ্যোগে ওয়েল্ডিং, রেফ্রিজারেশন ও ইয়ার কন্ডিশনারিং ট্রেডে বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ নেওয়া এনআইইটির ৫০ শিক্ষার্থীরা বিনা মূল্যে থাকা-খাওয়ার সুবিধাসহ প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। প্রশিক্ষণ শেষে তাদের চাকরির ব্যবস্থা করার জন্যই এমন আয়োজন বলে জানিয়েছেন এনআইইটি কর্তৃপক্ষ। 

বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ নেওয়া শিক্ষার্থীদের একাংশ

আয়োজকরা জানান, দেশের বেসরকারি টেকনিক্যাল প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এনআইইটি অন্যতম প্রতিষ্ঠান। এখানে গুণগত মানসম্পন্ন ও দক্ষ ট্রেইনার, সুসজ্জিত আধুনিক ল্যাবের বিভিন্ন ট্রেডে বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ দিয়ে বেকারদের দক্ষ করে চাকরির ব্যবস্থা করা হয়।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (সেইপ) প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) ও সরকার অনুমোদন প্রাপ্ত কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির (এনআইইটি) দক্ষ জনশক্তি গড়ার প্রয়াসে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত করেছে। প্রকল্পটির অর্থায়নে রয়েছে-এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও সুইস এজেন্সি ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড কর্পোরেশন (এসডিসি)।

এ প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য—অংশগ্রহণকারী প্রশিক্ষণার্থীদের যোগ্যতা ও পছন্দের ভিত্তিতে দক্ষতা উন্নয়নমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করার পাশাপাশি প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের মধ্যে ৭০ শতাংশের চাকরিতে সংস্থাপন নিশ্চিত করে আর্থিক সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে দেশের টেকসই উন্নয়নে অবদান রাখা।

ওডি/এমআই

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড