• সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটিতে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

  মনিরুল ইসলাম মনি

২২ নভেম্বর ২০১৯, ১৩:৫৬
অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ
অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ

দেশের অন্যতম সেরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির বিভিন্ন বিভাগের নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ ও তাদেরকে নিয়ে ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর গ্রীনরোডস্থ সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটিতে বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার এস এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল বাশার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল বাশার বলেন, সমান অধিকার নয়, সমান মর্যাদা চাইতে হবে। আর এই মর্যাদা অর্জন করতে হলে সুশিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। সুশিক্ষাই পারে একজনকে মর্যাদাশীল করে গড়ে তুলতে। আর একজন মর্যাদাশীল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির একঝাঁক মেধাবী ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নিরলসভাবে পাঠদান করে যাচ্ছেন।

বক্তব্য রাখছেন সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল বাশার

শিক্ষকদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য বলেন, তোমরা এখন আর নিজেদের অধীনে নেই। এখন তোমরা শিক্ষকদের অধীনে চলে গেছ। তাই শিক্ষকদের সকল নির্দেশনা মেনে দিনের পড়া দিনেই শেষ করতে হবে। পড়া নিয়ে কোনো প্রকার অবহেলা করা যাবে না। শুধু নিজের বিভাগের শিক্ষককেই নয়, সকল শিক্ষকদেরকেই সমানভাবে সম্মান প্রদর্শন ও শ্রদ্ধা করতে হবে।

ইসলামের আলোকে পড়াশোনার মর্যাদা তুলে ধরে অধ্যাপক ড. মো. আবুল বাশার বলেন, পড়াশোনা করা ‘ফরজে কিফায়া’। বুঝতে হবে পড়াশোনাকে ‘ইসলাম’ কতটা সম্মান দিয়েছেন। জীবনে চলার পথে অনেক জ্ঞান প্রয়োজন হয়। কিন্তু সব জ্ঞানই পাঠ্যপুস্তকে পাওয়া যায় না। কিছু কিছু জ্ঞান শিক্ষকদের কাছ থেকেও শিখতে হয়।

নিজেকে পরিচর্যা করলে ভবিষ্যৎ আলোকিত হবে মন্তব্য করে উপাচার্য বলেন, লেখাপড়ার মাধ্যমে নিজেকে সঠিক পরিচর্যা করতে হবে। আর নিজেকে সঠিকভাবে পরিচর্যা করতে পারলে ভবিষৎ আলোকিত হবে। তাই নিজের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল করতে পড়ালেখার কোনো বিকল্প নেই। নিজে আলোকিত হলে পরিবার ও দেশ আলোকিত হবে।

এ সময় তিনি ছাত্র-ছাত্রীর উদ্দেশ্যে গঠনমূলক ও দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার অধ্যাপক মো. আল-আমিন মোল্লা বলেন, সবচেয়ে বড় ব্যাপারটি হলো, সোনারগাঁওয়ে আছে ইহকাল আর পরকালের কাজের চর্চা। বাংলাদেশে যদি একটি মানবিক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে থাকে তাহলে সেটি ‘সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি’। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সবচেয়ে কম টিউশন ফিতে সোনারগাঁওয়ে ভর্তি হওয়া যায়। মাত্র দেড় লাখ টাকায় এ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বিবিএ করা যাচ্ছে।

বক্তব্য রাখছেন সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার অধ্যাপক মো. আল-আমিন মোল্লা

মেধাবী দুই সহোদরের পরিশ্রম আর প্রজ্ঞার ফসল সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি উল্লেখ করে ট্রেজারার বলেন, দুই সহোদরের মেধা আর মননে সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি আজ এ পর্যায়ে। ইতোমধ্যেই সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির অর্জন অনেক। লাভ নয়, শিক্ষার প্রসার ঘটানোই সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির মূল উদ্দেশ্য।

সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. এম এ মাবুদ বলেন, পড়াশোনা একটি সুদীর্ঘ পথ। এই পথ পাড়ি দিতে হলে অনেক কাজ করতে হবে। সেই কাজগুলো সঠিকভাবে করতে পারলেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন করা যাবে। এতে কোনো গাফিলতি করা যাবে না।

সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় অনুষদের ডীন সহযোগী অধ্যাপক আবুল কালাম বলেন, পড়াশোনা খুবই কঠিন কাজ হলেও পড়াশোনাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে সেভাবে অধ্যয়ন করতে হবে।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়টির ছাত্র কল্যাণ উপদেষ্টা মোহাম্মদ শামছুল আলম সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির নানা সুবিধা তুলে ধরে বলেন, সোনারগাঁওয়ে শুধু পড়াশোনাই নয়, এখানে নীতি-নৈতিকতা আর ধর্মীয় মূল্যবোধের আলোকে সবকিছু শেখানো হয়। যা বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অপ্রতুল।

অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থীদের একাংশ

নবীন শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ইমরান হোসেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, অগ্রজ ও সহপাঠীদের কাছে সহযোগিতা কামনা করেন।

সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার এস এম নূরুল হুদা বলেন, নিজের জন্যই নিজেকে গড়তে হবে। তাই পড়াশোনায় বেশি বেশি মনোযোগী হতে হবে। কারণ এখনকার রেজাল্ট ভবিষ্যতের চাকরিক্ষেত্রেও দারুণভাবে প্রভাব ফেলতে পারে। চাকরিক্ষেত্রে পদোন্নতির ব্যাপারে ভালো রেজাল্ট খুবই জরুরি। এখন পড়াশোনার প্রতি অবহেলা করলে পরে কিন্তু নিজেকেই পস্তাতে হবে। তাই সময়ের সদ্ব্যবহার এখন থেকেই করতে হবে।

বক্তব্য রাখছেন সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি রেজিস্ট্রার এস এম নূরুল হুদা

পুরো অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন সিএসই বিভাগের শিক্ষার্থী মু. কাইয়ুম বাচ্চু ও বিবিএ-এর শিক্ষার্থী আয়সা সিদ্দীকা।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।

পরে আলাদা আলাদাভাবে বিভাগভিত্তিক শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন করানো হয়।

রেজিস্টার ও ছাত্র কল্যাণ উপদেষ্টার সঙ্গে শিক্ষার্থীরা

ওডি/এমআই

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড