• মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

খামারিদের স্বার্থে হিমায়িত গরুর মাংস আমদানি বন্ধের দাবি

  অধিকার ডেস্ক

০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:২৭
বিদেশ থেকে গরুর মাংস আমদানি প্রসঙ্গে
গরুর মাংস আমদানি প্রক্রিয়া বন্ধে প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন (ছবি : সংগৃহীত)

বিদেশ থেকে অবাধে হিমায়িত গরুর মাংস আমদানিতে দেশীয় উদ্যোক্তা ও প্রান্তিক খামারিরা চরম আর্থিক সংকটে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এজন্য দেশের খামাড়িদের স্বার্থে হিমায়িত গরুর মাংস আমদানি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন খাতটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১০টি সংগঠনের নেতারা।   

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানায় তারা।

বিদেশ থেকে হিমায়িত গরুর মাংস আমদানির ফলে দেশীয় উদ্যোক্তা ও প্রান্তিক খামারিদের ক্ষতির আশঙ্কা প্রকাশ করে অ্যানিমেল হেলথ কোম্পানিজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ড. নজরুল ইসলাম বলেন, বিদেশ থেকে অবাধে হিমায়িত গরুর মাংস আমদানি বন্ধ করতে হবে। অন্যথায় দেশীয় উদ্যোক্তা ও প্রান্তিক খামারিরা চরমভাবে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে। 

এছাড়া তরুণ উদ্যোক্তাদের বেকার হয়ে পড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেন, এই নেতিবাচক প্রভাব গিয়ে পড়বে গ্রামীণ অর্থনীতি, সামাজিক নিরাপত্তা, খাদ্য নিরাপত্তা ও কৃষিখাতে।

তিনি বলেন, দেশের ১৬ কোটি ভোক্তার প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণে এ দেশের খামারি ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। জনপ্রতি দৈনিক ১২০ গ্রাম মাংসের চাহিদা হিসেবে বার্ষিক মাংসের চাহিদা ৭২ দশমিক ৯৭ লাখ মেট্রিক টন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগি থেকে মোট মাংস উৎপাদিত হয়েছে ৭৫ দশমিক ১৪ লাখ মেট্রিক টন। অর্থাৎ ২ দশমিক ১৭ লাখ মেট্রিক টন উদ্বৃত্ত। এর মধ্যে গরু-ছাগলের মাংস মোট উৎপাদনের ৫৫ শতাংশ। 

সরকারের কাছে বিদেশ থেকে মাংস আমদানি বন্ধের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারি তথ্যমতে আমরা ইতোমধ্যে প্রাণিজ আমিষে স্বাবলম্বী হয়েছি। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে লক্ষ করা যাচ্ছে যে, বিদেশ থেকে হিমায়িত গরুর মাংস আমদানি সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনা বর্তমানে সরকারের সক্রিয় বিবেচনায় রয়েছে। দেশের বৃহত্তর জনগণের স্বার্থে আমরা হিমায়িত গরুর মাংস আমদানি প্রক্রিয়াটি বন্ধ করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছি।

এছাড়া দেশের ডেইরি ও ক্যাটল শিল্প একটি বিকাশমান শিল্প বলে উল্লেখ করে সংগঠনের অন্যান্য নেতারা আরও বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকে আজ পর্যন্ত যতটা প্রবৃদ্ধি অর্জন করার কথা ছিল তা সম্ভব হয়নি কেবল বিদেশি গরুর অবাধ বাণিজ্যের ফলে। 

তারা বলেন, ডেইরি ও ক্যাটল শিল্প বাংলাদেশের মৌলিক শিল্প। মৌলিক শিল্পে বিদেশি আমদানি নির্ভরতা গ্রহণযোগ্য নয়। এ শিল্পের সঙ্গে জড়িত রয়েছে গ্রাম বাংলার কোটি কোটি পরিবার ও খামারির জীবন-জীবিকা।

ওডি/এআর 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড