• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

৫০ টাকার নিচে মিলছে না সবজি

  অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৪৬
সবজি
(ছবি : ইন্টারনেট)

রাজধানীর কাঁচা বাজারগুলোতে সবজির দাম যেন কমছেই না। বেড়েই চলেছে সবজির দাম। বেশকিছু দিন ধরেই চড়া মূল্যে বিক্রি হচ্ছে প্রায় সব ধরনের সবজি। এ দিকে, শীতের আগাম সবজি ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, মুলার সরবরাহ বেড়েছে। তবুও ঢাকার কাঁচাবাজারে কমছে না সবজির দাম।

শুধুমাত্র কাঁচা পেঁপের কেজি ৫০ টাকার নিচে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া সব সবজির দাম ৫০ টাকার ওপরে। কোনো কোনো সবজি আবার কেজি ১০০ টাকার ওপরে বিক্রি হচ্ছে। অনেকে আবার প্রতিদিনই বাড়ছে সবজির দাম এমন অভিযোগও তুলছেন।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর কারওয়ান বাজার, মিরপুর, শেওড়াপাড়া, মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট কাঁচাবাজার, সেগুনবাগিচা, খিলগাঁও, মালিবাগ হাজীপাড়া, রামপুরা ও শান্তিনগর এলাকার বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে বিক্রেতা ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য জানা যায়।

এ বিষয়ে ব্যবসায়ীরা বলেন, আগাম শীতের সবজি ফুলকপি, বাঁধাকপি, মুলা ও শিম গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই বাজারগুলোতে বিক্রি হচ্ছে। এর মধ্যে একমাত্র শিমের দাম কিছুটা কমেছে। তবে এখনো শিমের কেজি ১০০ টাকার ওপরে বিক্রি হচ্ছে।

তারা আরও বলেন,  ফুলকপি, বাঁধাকপি, মুলা ও শিমের সরবরাহ বেড়েছে। তবে এই সব সবজির মৌসুম পুরোদমে শুরু হয়নি এখনো। যার কারণেই এসব সবজির দাম একটু বেশি। তবে চলতি মাসের শেষের দিকে সব ধরনের সবজির দাম কমা শুরু হতে পারে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শিমের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ টাকায়। শিমের পাশাপাশি চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে মুলা, ফুলকপি, বাঁধাকপিও। ছোট আকারের ফুলকপি ও বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা পিস। আর মুলা বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে।

শীতের আগাম সবজির সঙ্গে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে লাউ, গাজর, ঝিঙা, ধুন্দল, বরবটি, বেগুন, টমেটো, করলা, পটল ও ঢেঁড়স সহ প্রায় সব ধরনের সবজি। ছোট আকারের লাউ বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা পিস। গাজর বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। ঝিঙা, ধুন্দল ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। বরবটি ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। বেগুন ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি। পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজি। করলার ৬০ থেকে ৭০ টাকা।  চিচিঙ্গা ও কাঁকরোল ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এ সবজিগুলোর দাম সপ্তাহের ব্যবধানে অপরিবর্তিত রয়েছে।

তবে পেঁপে ও মিষ্টি কুমড়া কিছুটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে। পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি। আর মিষ্টি কুমড়ার বড় ছোট ফালি পিস পাওয়া যাচ্ছে ১৫ থেকে ২০ টাকায়।

এছাড়া ২৫০ গ্রাম কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকায়। দেশি পেঁয়াজের কেজি ৫০ থেকে ৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর আমদানি করা পেঁয়াজ কেজি ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

শান্তিনগর বাজারের একজন ব্যবসায়ী বলেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই শুনছি সব সবজির দাম কমবে। কিন্তু তার কোনো লক্ষণ দেখছি না। ছোট একটি কপির দাম রাখা হচ্ছে ৫০ টাকা। শীতের আগাম সবজি শিমের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকার ওপরে। শুধুমাত্র কাঁচা পেঁপে ৫০ টাকার নিচে বিক্রি হচ্ছে।

সবজির দাম বেশি প্রসঙ্গে কারওয়ান বাজারের  এক ব্যবসায়ী বলেন, গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে সবজির দাম বাড়েনি, আবার কমেনিও। তবে শিগগিরই দাম কমবে বলে আশা করছি। কিন্তু টানা বৃষ্টি হলে এর বিপরীতটাও হতে পারে। তখন সবজির দাম কমার বদলে, উল্টো দাম বাড়তে পারে।

ওডি/টিএএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড