• শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৫  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন

সামাজিক দায়বদ্ধতার ব্যয়ে সবচেয়ে এগিয়ে ইসলামী ব্যাংক

  অধিকার ডেস্ক    ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২৮

ব্যাংক
বাংলাদেশ ব্যাংক

২০১৮ সালে কর্পোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি (সিএসআর) বা সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচির আওতায় বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করেছে। ডাচ বাংলা ব্যাংক ও প্রাইম ব্যাংক এর পরের অবস্থানে রয়েছে।

সিএসআর খাতে ২০১৮ সালে ব্যাংকগুলো মোট ৯০৪ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। এই খাতে সবচেয়ে বেশি ব্যয় হয়েছে শিক্ষাখাতে (৩৯০ কোটি টাকা),পরের অবস্থানে বেশি ব্যয় হয়েছে দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা খাতে (৩৩১ কোটি টাকা)।  

বাংলাদেশ ব্যাংক,দেশের ব্যাংকগুলোর সিএসআর ব্যয় নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেই প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। 

সেখানে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালে ইসলামী ব্যাংক সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করেছে। ব্যাংকটির ব্যয়ের পরিমাণ ২৮১ কোটি টাকা। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ডাচ বাংলা ব্যাংক ব্যয় করেছে ৮৩ কোটি টাকা এবং তৃতীয় অবস্থানে থাকা প্রাইম ব্যাংক ব্যয় করেছে ৭০ কোটি টাকা। চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে থাকা এক্সিম ব্যাংক ৬১ কোটি টাকা ও ন্যাশনাল ব্যাংক ৪৩ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। 

সিএসআর খাতে অর্থ ব্যয় করলেও দীর্ঘদিন ধরে ব্যাংকগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মানছে না। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী, সিএসআর ব্যয়ে মোট অর্থের ৩০ শতাংশ শিক্ষা, ২০ শতাংশ চিকিৎসা খাতে, দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা খাতে ১০ শতাংশ ব্যয় করার কথা। তবে ব্যাংকগুলোর সিএসআর কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা খাতে ৩০ দশমিক ২৮ শতাংশ ও স্বাস্থ্য খাতে ১০ দশমিক ৮৬ শতাংশ ব্যয় করেছে।তাদের শিক্ষাবৃত্তি ছাড়া অন্য কোনো সিএসআর কর্মসূচি চোখে পড়ে না।

এ প্রসঙ্গে ব্যাংক এমডিদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) চেয়ারম্যান ও ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, দেশে দুযোর্গের ঝুঁকি বেশি থাকায় সরকার এই খাতে সহায়তায় আহ্বান জানায়। তবে ব্যাংকগুলো শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতেও সিএসআরের অনেক অর্থ ব্যয় করছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যাংকগুলো সিএসআর খাতে জানুয়ারি-জুন প্রান্তিকে ৬২৭ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। এর মধ্যে শিক্ষাখাতে ২৭২ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। যেখানে ইসলামী ব্যাংক একাই ব্যয় করেছে ২০৭ কোটি টাকা আর ডাচ বাংলা ব্যাংক ২৮ কোটি টাকা ব্যয় করেছে।

অন্যদিকে দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা খাতে ২৪৬ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে। এ খাতে ব্যয়ে ইসলামী ব্যাংক ৬৫ কোটি টাকা, এক্সিম ব্যাংক ২৫ কোটি টাকা ও ন্যাশনাল ব্যাংক ১৮ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। তবে বছরের প্রথমার্ধে ব্যাংকগুলো সংস্কৃতি খাতে ব্যয় করেছে মাত্র ১৫ কোটি টাকা।  

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে,ব্যাংকগুলো সিএসআর খাতে জুলাই-ডিসেম্বর প্রান্তিকে ব্যয় করেছে ২৭৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে শিক্ষা খাতে ১০৭ কোটি, দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা খাতে ৮৪ কোটি ও স্বাস্থ্য খাতে ৩০ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। 

সেসময় শিক্ষাখাতে প্রাইম ব্যাংক ৫০ কোটি টাকা, ডাচ বাংলা ব্যাংক ২৬ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। আর দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা খাতে এক্সিম ব্যাংক ১৯ কোটি টাকা, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ৯ কোটি টাকা ও প্রিমিয়ার ব্যাংক ৭ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। অন্যদিকে ন্যাশনাল ব্যাংক সংস্কৃতি খাতে ১০ কোটি টাকা ব্যয় করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচির আওতায় অর্থ ব্যয়ের জন্য ব্যাংকগুলোকে খাত উল্লেখ করে বরাদ্দ নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা উপেক্ষিত হওয়া অত্যন্ত দুঃখজনক।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড