• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

নিজ দেশে ফিরে যেতে রোহিঙ্গাদের দুই শর্ত||এ পি জে আব্দুল কালামের স্মৃতিতে ভূষিত প্রধানমন্ত্রী  ||উদ্বেগ থাকলেও ভারতের ওপর বিশ্বাস রাখতে চাই : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ||ছাত্রলীগের চাঁদাবাজি ঢাকতেই ছাত্রদলের কাউন্সিল বন্ধ : রিজভী ||কাশ্মীরে জঙ্গি অনুপ্রবেশের অভিযোগে সীমান্তে‌ হাই অ্যালার্ট||ভারতের পর এবার বিশ্বকে পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের||সোমবার আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব নেবেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক||মেক্সিকোয় কুয়া থেকে ৪৪ মরদেহ উদ্ধার করল বিজ্ঞানীরা||অন্যায় করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না : কাদের    ||সৌদির তেল স্থাপনাতে হামলায় ইরানকে দায়ী করল যুক্তরাষ্ট্র

চলতি বছর বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি কমে ৭ শতাংশে নামার পূর্বাভাস

বিশ্ব ব্যাংক
বাংলাদেশে জিডিপির হার কমার পুর্বাভাস বিশ্ব ব্যাংকের (ছবি: সংগৃহীত)

চলতি অর্থবছর (২০১৮-১৯) বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ হবে পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। আর ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি আরও কমে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ হবে বলে সংস্থাটি জানিয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ৯ শতাংশ ছিল বলে জানায় তারা। ফলে ধারাবাহিকভাবে বাংলাদেশের জিডিপি কমার ইঙ্গিত দেয় সংস্থাটি।   

মঙ্গলবার(৮ জানুয়ারি) রাতে ওয়াশিংটনে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সম্ভাবনা ২০১৯ (গ্লোবাল ইকোনমিক প্রসপেক্টাস) শীর্ষক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানায় সংস্থাটি। 

এ দিকে বাংলাদেশের সরকারি পূর্বাভাস অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ৮ শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। যা বিশ্বব্যাংকের প্রাক্কলন সরকারের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অনেক কম। 

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত অর্থবছরে বাংলাদেশে ৭ দশমিক ৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের চালিকাশক্তি ছিল বেসরকারি ভোগ ও রেমিট্যান্স প্রবাহ। চলতি অর্থবছরেও অর্থনীতিতে তেজিভাব থাকবে। তবে প্রবৃদ্ধি কিছুটা কমে ৭ শতাংশ হবে। সরকারের ব্যয় প্রবৃদ্ধির পেছনে বেসরকারি খাতে ভোগ ব্যয় এবং বড় প্রকল্পের বাস্তবায়ন ভূমিকা রাখবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশের মধ্যে চলতি অর্থবছর প্রবৃদ্ধি অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান হবে তৃতীয়। আর ভুটান থাকবে প্রথম অবস্থানে থাকবে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভুটানের প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৬ শতাংশ। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারতের প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ। আর চলতি অর্থবছর দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক প্রবৃদ্ধি বেড়ে হবে ৭ দশমিক ১ শতাংশ। যেখানে ভারতের শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি আঞ্চলিক প্রবৃদ্ধি বাড়াতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

আর দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের মধ্যে বিশ্বব্যাংক মালদ্বীপে ৬ দশমিক ৩ শতাংশ, নেপালে ৫ দশমিক ৯ শতাংশ, পাকিস্তানে ৩ দশমিক ৭ শতাংশ এবং আফগানিস্তানে ২ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন করেছে 

অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যযুদ্ধ এবং উৎপাদনে ধীরগতির কারণে ২০১৮ সালে বিশ্ব প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন আগের চেয়ে কমিয়ে ৩ শতাংশ নির্ধারণ করেছে। আর ২০১৯ সালে সেটি আরও কমে ২ দশমিক ৯ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে। 
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড