• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কমল টাকার মান 

  অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

২৮ এপ্রিল ২০২২, ১০:২২
কমল টাকার মান 
ডলারের বিপরীতে টাকা (ছবি : সংগৃহীত)

বাংলাদেশে ব্যাপক হারে পণ্য আমদানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে অতিরিক্ত চাহিদার কারণে ক্রমেই বাড়ছে মার্কিন ডলারের দাম। আর এতেই ধীরে ধীরে মান হারাচ্ছে টাকা। মাত্র এক দিনের মধ্যেই ডলারের বিপরীতে টাকার মান ২৫ পয়সা কমে গেছে বলে জানা যায়।

বুধবার (২৭ এপ্রিল) আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতিটি ডলার কিনতে খরচ হয়েছে ৮৬ টাকা ৪৫ পয়সার বিনিময়ে। যেখানে এর মাত্র একদিন আগে মঙ্গলবারও (২৬ এপ্রিল) এক ডলার কিনতে লেগেছিল ৮৬ টাকা ২০ পয়সা।

এ দিকে ব্যাংকগুলো নগদ ডলার বিক্রি করছে এর চাইতে তিন থেকে চার টাকা বেশি দরে। এছাড়া ব্যাংকের বাইরে খোলাবাজার বা কার্ব মার্কেটে প্রতিটি ডলার ৯২ থেকে ৯৩ টাকায় কেনা-বেচা হচ্ছে।

সংশ্লিষ্টদের মতে, বাংলাদেশে আমদানির চাপ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই অনুযায়ী প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স ও রফতানি আয় ততটা বাড়েনি। যার ফলে আমদানির দায় পরিশোধে বাড়তি ডলার প্রয়োজন হচ্ছে। ফলে বৈদেশিক মুদ্রা সরবরাহেও খানিক ঘাটতি দেখা দিচ্ছে। এতে করে টাকার বিপরীতে বেড়েই চলেছে ডলারের দাম। কিন্তু বাজার স্থিতিশীল রাখতে ব্যাংকগুলোর চাহিদার বিপরীতে ডলার বিক্রির পথে হেঁটেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বিশ্লেষকদের মতে, ২০২০ সালের জুলাই মাস থেকে ২০২১ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে ডলারের দাম ৮৪ টাকা ৮০ পয়সায় স্থিতিশীল ছিল। যদিও এরপর থেকে বড় ধরনের আমদানি ব্যয়ের পরিশোধ করতে গিয়ে বাজারে ডলার সংকট শুরু হয়।

আরও পড়ুন : দখল-দূষণে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নালা-খাল

গত বছরের আগস্ট মাসের শুরুর দিকেও আন্তঃব্যাংকে প্রতি ডলারের মূল্য প্রায় একই ছিল। এরপর ৩ আগস্ট থেকে দু-এক পয়সা করে বাড়তে বাড়তে গত ২২ আগস্ট প্রথমবারের মতো ৮৫ টাকা ছাড়িয়ে যায়। এরপর গত ৯ জানুয়ারিতে এটি বেড়ে ৮৬ টাকায় পৌঁছায়। এরপর ২২ মার্চ পর্যন্ত এ রেটেই স্থির থাকে।

পরবর্তীকালে গেল ২৩ মার্চ আন্তঃব্যাংকে আরও ২০ পয়সা বেড়ে ৮৬ টাকা ২০ পয়সায় দাঁড়ায়। আর ২৭ এপ্রিল আরও ২৫ পয়সা বেড়ে ৮৬ টাকা ৪৫ পয়সায় দাঁড়িয়েছে ডলারের দাম। অর্থাৎ গত প্রায় ৯ মাসে প্রতি ডলারে দর এক টাকা ৬৫ পয়সা বেড়েছে। যা এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ রেকর্ড মূল্য।

দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মতে, বাজারে যখন বৈদেশিক মুদ্রার সরবরাহ বেশি ছিল তখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলার কিনেছে। এখন সরবরাহ হ্রাস পাওয়ায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাজারের চাহিদা অনুযায়ী ডলার বিক্রি করে দিচ্ছে।

আরও পড়ুন : সবজি নিয়ে আর বাজারে যাওয়া হলো না ওদের

উল্লেখ্য, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জুলাই থেকে গতকাল ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত বিভিন্ন ব্যাংকের কাছে সব মিলিয়ে ৪৬০ কোটি (৪.৬০ বিলিয়ন) ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এরপরও ডলারের দাম স্থিতিশীল রাখা যাচ্ছে না। গত অর্থবছরের আগে সেটিই ছিল সর্বোচ্চ ডলার কেনার রেকর্ড করেছিল আর্থিক খাতের এ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড