• শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সাকিব আল হাসানের পিপলস ব্যাংকের অনুমোদন বাতিল

  অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

২১ জানুয়ারি ২০২২, ১২:২০
কেন্দ্রীয় ব্যাংক (ছবি : সংগৃহীত)

প্রাথমিক অনুমোদনের তিন বছরেও মূলধন যোগান দিতে না পারায় প্রস্তাবিত পিপলস ব্যাংকের অনুমোদন বাতিল করলো বাংলাদেশ ব্যাংক। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে দেওয়া সম্মতিপত্রের (এলওআই) মেয়াদ কয়েক দফা বাড়ানোর পর সর্বশেষ গত ডিসেম্বরে শেষ হয়। নতুন করে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও তার মা শিরিন আক্তারকে যুক্ত করে এলওআইর মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানোর আবেদন করেন ব্যাংকটির মূল উদ্যোক্তা এম এ কাশেম। তবে বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে এ আবেদন উঠলে তা নাকচ হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সভাকক্ষে গভর্নর ফজলে কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে অন্য পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন। এতে পিপলস ব্যাংকের এলওআইর মেয়াদ বৃদ্ধি ছাড়াও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। প্রস্তাবিত পিপলস ব্যাংকের চেয়ারম্যান এমএ কাশেম যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা। তার বাড়ি চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে।

জানা যায়, ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে করা প্রথম দফার আবেদনে ১২ জন শেয়ারহোল্ডারের নাম উল্লেখ ছিল। সেখানে অনেক বিতর্কিত ব্যক্তি ছিলেন। অনেকে মূলধন হিসেবে যে অর্থ যোগান দিতে চাচ্ছিলেন তার উৎস ছিল অজানা। এসব নিয়ে বিতর্কের মধ্যে বার-বার এলওআইর মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করে আসছিলেন এমএ কাশেম। প্রতিবার তাতে সায় দিয়ে সর্বশেষ গত আগস্টে ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এলওআইর মেয়াদ বাড়ানো হয়। নির্ধারিত সময়ে মূলধন যোগান দিতে না পারলে এটি বাতিল হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। তবে এ দফায়ও মূলধন যোগানের উদ্যোগ না নিয়ে গত ২১ ডিসেম্বর তিনি ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সেখানে সাকিব আল হাসান ও তার মা শিরিন আক্তারসহ মোট ২২ জনকে শেয়ারহোল্ডার হিসেবে যুক্ত করার আগ্রহ দেখান।

ব্যাংকটিতে সাকিব মোট ২৫ কোটি টাকার মূলধন সরবরাহের আগ্রহের কথা জানান।

২০১৯ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের বৈঠক থেকে নতুন করে তিনটি ব্যাংকের এলওআই দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। তিন ব্যাংকের মধ্যে বেঙ্গল গ্রুপের মালিকানার বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক বেশ আগেই চ্ড়ান্ত লাইসেন্স নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছে। আর আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের দ্যা সিটিজেন ব্যাংক চূড়ান্ত লাইসেন্স নিয়ে কার্যক্রম শুরুর অপেক্ষায় রয়েছে। তবে শর্ত পূরণ করতে না পারা ও বিভিন্ন বিতর্কের কারণে পিপলস ব্যাংকের এলওআই বাতিল হলো।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, পিপলস ব্যাংকের এলওআইর মেয়াদ গত ৩১ ডিসেম্বরে শেষ হয়েছে। নতুন করে মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন আসলে তা নাকচ করেছে পর্ষদ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, এলওআইর মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য প্রস্তাবিত পিপলস ব্যাংকের মূল উদ্যোক্তা এম এ কাশেম সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে আবেদন করেন।

সিটিজেনসহ দেশে বর্তমানে বাণিজ্যিক ব্যাংক রয়েছে ৬১টি। এর মধ্যে সরকারি ও বিদেশি মালিকানায় ৯টি করে ১৮ ব্যাংক রয়েছে। বাকি ৪৩টি বেসরকারি মালিকানায় পরিচালিত।

ওডি/এএম

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড