• মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাজস্ব বাড়লে ভ্যাট হার কমবে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৫:০৯
আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম
আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম (ফাইল ফটো)

রাজস্ব বাড়লে ভ্যাটের হার কমবে বলে মন্তব্য করেছেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে পল্টনের ফারস হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টে ইলেকট্রনিক ফিসকাল ডিভাইস (ইএফডি) ও সেলস ডাটা কন্ট্রোলার (এসডিসি) ব্যবহার ও উপকারিতা সম্পর্কে জানাতে আয়োজিত সেমিনার ও আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রহমাতুল মুনিম বলেন, আমাদের এনবিআরের একটা ফর্মুলা আছে। যত রেভিনিউ (রাজস্ব) বৃদ্ধি পাবে তত আমরা রেট কমাতে পারবো। যত আয় বৃদ্ধি পাবে তত আমরা ভ্যাট কমাতে পারবো।

ভ্যাটের পরিমাণ বাড়াতে আগামী জানুয়ারি থেকে যেসব ক্রেতা ইফডি মেশিনের মাধ্যমে ভ্যাট দেবেন, তাদের লটারির মাধ্যমে পুরস্কারের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান তিনি।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, যাদের ইএফডি মেশিন আছে, তারা জানুয়ারি থেকে কম্ফোর্ট ফিল করবেন। ইএফডি মেশিনের মাধ্যমে একটা করে ইনভয়েস জেনারেট হয়। এই ইনভয়েসের একটা ইউনিক নম্বর থাকে। আমরা পরিকল্পনা করেছিম জানুয়ারি থেকে ইএফডি মেশিন থেকে যে ইনভয়েস পাব, সেগুলোর ওপর লটারি করবো। প্রতি মাসে ইনভয়েসগুলোর ওপর লটারি হবে। সেই লটারিতে আমরা বিভিন্ন ধরনের পুরস্কা রেখেছি।

লটারিতে প্রাপ্ত অর্থের জন্য ক্রেতা ভ্যাট দিতে উদ্বুদ্ধ হবেন জানিয়ে তিনি বলেন, যখন লটারিতে নগদ অর্থ পাওয়া যাবে তখন একজন কাস্টমার ২-৩ টাকা বেশি দিয়ে ভ্যাট দেয়ার জন্য দ্বিধা করবেন না। তখন তার কাছে ভ্যাট চাপ মনে হবে না। এ কারণে লটারির টিকিট নিতে ক্রেতা ইফডি মেশিন যেসব দোকানে আছে সেখান থেকে কেনাকাটা করবে। এর ফলে যে দোকানে ইএফডি মেশিন নেই সেই দোকানে বিক্রি কমবে।

আরও পড়ুন : বিএনপির ইন্ধনে বঙ্গবন্ধুর ...

তিনি বলেন, ভ্যাট নিয়ে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া আছে। বিক্রেতাকে ভ্যাটকে বোঝা মনে করে আর ক্রেতারা ভাবেন তাদের প্রদেয় ভ্যাট সরকারের কাছে পৌঁছায় না। আমরা চাই জনগণের ভ্যাট না দেয়ার মানসিকতা দূর হোক।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড