• বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পুঁজিবাজারে দীর্ঘমেয়াদি স্থিতিশীলতার প্রত্যাশা বিনিয়োগকারীদের

  অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

২০ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:৩২
শেয়ার বাজার
ছবি : শেয়ার বাজার

বিনিয়োগকারীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে অবশেষে পুঁজিবাজার গতিশীল হয়ে উঠেছে। পুঁজিবাজার ঠিক করতে গত বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিএসইসির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রধানমন্ত্রী বেশ কিছু ইতিবাচক নির্দেশনা দেন।

তিনি বলেন, বাজারে তারল্য সংকট কাটাতে সরকারি চার ব্যাংকের বিনিয়োগ বৃদ্ধি, মার্চেন্ট ব্যাংক ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের সহজ শর্তে ঋণ সুবিধা প্রদান, সরকারি বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান আইসিবির বিনিয়োগ সক্ষমতা বৃদ্ধি, বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করা, দেশীয় বাজারে আস্থা সৃষ্টির জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং মানসম্পন্ন আইপিও আনতে বহুজাতিক ও সরকারি মালিকানাধীন লাভজনক কোম্পানিগুলোকে তালিকভুক্তিকরণের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। 

এদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক পুঁজিবাজারে অর্থ সংকট কাটাতে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের প্রস্তাব করা ১০ কোটি টাকার ফান্ডের বিষয়েও ইতিবাচল মনোভাব প্রকাশ করে। এর ফলে বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ৮১ পয়েন্ট বাড়ে। আবার গতকাল এক দিনেই ২৩২ পয়েন্ট বেড়েছে। অর্থাৎ শেষ দুই কার্যদিবসে ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ৩১৩ পয়েন্ট। 

তবে এতে বাজারসংশ্লিষ্টসহ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এলেও আশঙ্কা রয়েই গেছে। গত কয়েক মাস ধরেই বাজারে অস্বাভাবিক পতন চলছে। কিন্তু এর মধ্যে হঠাৎ করে দুই দিনের উত্থানকে অস্বাভাবিকই বলা যায়। তাই কৃত্রিমভাবে সূচক না বাড়িয়ে পুঁজিবাজারে দীর্ঘমেয়াদি স্থিতিশীলতা আসুক এমনটাই পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকলে প্রত্যাশা করেন। 

গতকাল লেনদেনকৃত ৩৫৬ কোম্পানির মধ্যে ৩৪৬টি কোম্পানির দর বেড়েছে, ৬টির দর কমেছে এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪টি। মাত্র ৬ কোম্পানির দরপতন হওয়ায় পতনের শীর্ষ দশের তালিকা সম্পূর্ণ করা যায়নি। এই ৬টি কোম্পানি হচ্ছে এসএস স্টিল, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, জুট স্পিনার্স, এলআর গ্লোবাল মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান ও প্রগ্রেসিভ লাইফ।

এদিকে প্রকৌশল খাত প্রায় ১৭ শতাংশ লেনদেন হয়ে শীর্ষে ছিল। এ খাতের সিঙ্গার বিডির দর ৮ টাকা ৭০ পয়সা বেড়ে ১৭ কোটি ১৭ লাখ টাকা, ১ টাকা দর কমে এসএস স্টিলে ১০ কোটি ৪১ লাখ টাকা লেনদেন হয়। 

আরও পড়ুন : নানা অজুহাতে অস্থির ভোজ্যতেলের বাজার

অন্যদিকে আজিজ পাইপস ও বিডি ল্যাম্পস দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে উঠে আসে। ১৩ শতাংশ হারে ওষুধ ও রসায়ন খাত এবং ব্যাংক খাতে লেনদেন হয়। ওষুধ খাতের স্কয়ার ফার্মার দর ৭ টাকা ৫০ পয়সা বেড়ে ১৯ কোটি ১৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। বেক্সিমকো ফার্মাও ১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। এনসিসি ব্যাংকের ৬ কোটি ৮৯ লাখ টাকা ও ব্যাংক এশিয়ার ৬ কোটি ৩৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়।

১১ শতাংশ লেনদেন হয় বস্ত্র খাতে। এ খাতের রিং শাইনের দর ৫০ পয়সা বেড়ে সাড়ে ৬ কোটি টাকা লেনদেন হয়। স্টাইল ক্রাফট প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধিতে ৩য় ও দেশ গার্মেন্টস ৫ম অবস্থানে আছে। এছাড়া টেলিযোগাযোগ খাতের গ্রামীণফোনের দর ২১ টাকা ১০ পয়সা বেড়ে ৯ কোটি ৩৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। 

ওডি/এওয়াইআর 
​​​​​​​

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড