• রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে প্রধান সূচকের পতন

  অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

১২ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৫০
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ছবি : সংগৃহীত)

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহজুড়ে সূচকের টানা পতন হয়েছে। গত পাঁচ কার্যদিবসে ডিএসইএক্স সূচকের পতন হয় ২৬১ দশমিক ৯০ পয়েন্ট। বাকি দুই সূচকেও বড় পতন ছিল। দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ৩ দশমিক ১৬ শতাংশ।

তবে মোট লেনদেন বেড়েছে ২১ দশমিক ০৫ শতাংশ। এর কারণ গত সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবস লেনদেন হয়। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল চার কার্যদিবস। সে সঙ্গে বাজার মূলধন কমেছে পাঁচ দশমিক শূন্য চার শতাংশ।

সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৬১ দশমিক ৯০ পয়েন্ট বা পাঁচ দশমিক ৮৭ শতাংশ বেড়ে ৪ হাজার ১৯৭ দশমিক ৩৯ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ৬৩ দশমিক ৫০ পয়েন্ট বা ৬ দশমিক ২৯ শতাংশ কমে ৯৪৫ দশমিক ৯২ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএস৩০ সূচক ৯৯ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট বা ৬ দশমিক ৬২ শতাংশ কমে ১ হাজার ৪০৬ দশমিক ৩৮ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৫৯টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৪টির, কমেছে ৩১০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৩ কোম্পানির শেয়ারদর। লেনদেন হয়নি দুটির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৩১৫ কোটি ৪২ লাখ ৫৯ হাজার ২১৭ টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৩২৫ কোটি ৭২ লাখ ৩৫ হাজার ১৮৩ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ১০ কোটি ২৯ লাখ টাকা বা ৩ দশমিক ১৬ শতাংশ।

গেল সপ্তাহে ডিএসইতে মোট টার্নওভার বা লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ১ হাজার ৫৭৭ কোটি ১২ লাখ ৯৬ হাজার ৮৪ টাকা। আগের সপ্তাহে যা ছিল ১ হাজার ৩০২ কোটি ৮৯ লাখ ৪০ হাজার ৭৩১ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার বেড়েছে ২৭৪ কোটি ২৩ লাখ টাকা বা ২১ দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ।

ডিএসইতে গত সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রবিবার বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৪০ হাজার ৮১১ কোটি ৪ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। শেষ কার্যদিবসে যার পরিমাণ ছিল ৩ লাখ ২৩ হাজার ৬৫০ কোটি ২ লাখ ৮১ হাজার টাকা। সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন কমেছে পাঁচ দশমিক শূন্য চার শতাংশ বা ১৭ হাজার ১৬১ কোটি টাকা।

গত সপ্তাহে ডিএসইর টপ টেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে ‘বি’ ক্যাটেগরির ন্যাশনাল ফিড মিল। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ১০ দশমিক ৪২ শতাংশ বেড়েছে। তালিকায় এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশের দর ১০ দশমিক ৩৫ শতাংশ, বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির দর ৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ, মোজাফফর হোসেন স্পিনিংয়ের দর ৫ দশমিক ৭১ শতাংশ বেড়েছে। স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের দর ৪ দশমিক ৫৫ শতাংশ, ইয়াকিন পলিমারের দর ৩ দশমিক ৫১ শতাংশ, খুলনা পাওয়ার কোম্পানির দর ৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ, কে অ্যান্ড কিউর দর ৩ দশমিক ৩৭ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর ২ দশমিক ৩৮ শতাংশ, আইএফআইসি ব্যাংকের দর বেড়েছে ২ দশমিক ১৭ শতাংশ।

অন্যদিকে ১৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ কমে সাপ্তাহিক দরপতনের শীর্ষে অবস্থান করে সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ। নর্দান জুটের দর ১৭ দশমিক ৮৫ শতাংশ, প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দর ১৭ দশমিক ৬৬ শতাংশ, এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ডের দর ১৬ দশমিক ১৯ শতাংশ, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্সের দর ১৫ দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ, সিএপিএম আইবিবিএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ১৫ শতাংশ, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের দর ১৪ দশমিক ৭০ শতাংশ, ঢাকা ইন্স্যুরেন্সের দর ১৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ, রিং শাইন টেক্সটাইলের দর ১৪ দশমিক ২৯ শতাংশ, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রোর দর ১৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ কমেছে।

আরও পড়ুন : ব্যাংকের নারী কর্মীরা পাচ্ছেন ৬ মাসের ছুটি

ডিএসইতে টার্নওভারের দিক থেকে শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো- লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, এডিএন টেলিকম, ব্র্যাক ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, বীকন ফার্মা, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স, সিটি ব্যাংক ও ন্যাশনাল টিউবস।

ওডি/এসএস

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড