• শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘ইনটেক্স সাউথ এশিয়া বাংলাদেশ’-এর উদ্বোধন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:১৯
‘ইনটেক্স সাউথ এশিয়া বাংলাদেশ’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিদের সাথে আয়োজকরা
‘ইনটেক্স সাউথ এশিয়া বাংলাদেশ’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিদের সাথে আয়োজকরা (ছবি : অধিকার)

১০টি দেশের অংশগ্রহণে বস্ত্রশিল্প খাতে কাঙ্ক্ষিত সাফল্যের লক্ষ্যে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক টেক্সটাইল প্রদর্শনী ‘ইনটেক্স সাউথ এশিয়া বাংলাদেশ’। 

রবিবার (১৭ নভেম্বর) রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে এ প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করেন পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন ভারতের ডেপুটি হাই কমিশনার বিশ্বদীপ দে। 

‘ইনটেক্স সাউথ এশিয়া বাংলাদেশ’-এর উদ্বোধন

এ ছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ডডেক্স ইন্ডিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজেশ ভগত, পরিচালক আরতি ভগত, বিটিএমের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আলী খোকন, বিকেএমইয়ের প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ হাতেম ও আইবিসিসির প্রেসিডেন্ট আব্দুল মাতলুব আহমেদ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা

ওয়ার্ল্ডডেক্স ইন্ডিয়ার আয়োজনে ও বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিএমএ) এবং বাংলাদেশ নিটওয়্যার প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সংগঠনের (বিকেএমই) উদ্যোগে ১৭-১৮ নভেম্বর দুই দিনব্যাপী এই প্রদর্শনীর আয়োজন করে বাংলাদেশে।

প্রদর্শনী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ সরকারের পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

প্রদর্শনী উদ্বোধন করে তিনি বলেন,আশার কথা হলো বাংলাদেশের টেক্সটাইল শিল্প দিন দিন সমৃদ্ধি লাভ করছে। সর্বোচ্চ গুণগতমান বিচারে ইতোমধ্যেই দেশের টেক্সটাইল প্রোডাক্ট আন্তর্জাতিকভাবেও সমাদৃত। তাই এ শিল্পটির ওপর সরকারের সুনজর আছে। এই শিল্পটির উন্নয়নে সরকার বিভিন্ন পলিসি গ্রহণ করেছে। 

দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে বস্ত্রশিল্পের অবদান তুলে ধরে বস্ত্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশ খুব কম সময়েই টেক্সটাইল শিল্পে উন্নয়ন ঘটিয়েছে। যা দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখার জন্য ইতিবাচক। ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে বাংলাদেশ বস্ত্রশিল্পের রপ্তানি অর্জন ৩২ বিলিয়ন ডলার। 

ইনটেক্স প্রদর্শনীর গুরুত্ব তুলে ধরে পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, এমন প্রদর্শনীর গুরুত্ব অনেক। এই প্রদর্শনীর ফলে বাংলাদেশের প্যাশন ও ফ্যাশন ভিন্ন ভিন্ন দেশে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। যা বাংলাদেশি সংস্কৃতির প্রতিনিধিত্বও করছে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে। 

তিনি বলেন, ইনটেক্স দক্ষিণ এশিয়া বাংলাদেশ প্রদর্শনীর মাধ্যমে দেশের বস্ত্রশিল্পের উন্নয়নের দ্বার আরেক ধাপ এগিয়ে গেল। এতে করে বাংলাদেশের বস্ত্র ব্যবসায়ীদের সঙ্গে দক্ষিণ এশিয়ার বস্ত্র ব্যবসায়ী ও সরবরাহকারীদের সাথে একটি সুসম্পর্ক তৈরি হলো। যা দেশের বস্ত্রশিল্পের জন্য একটি বড় সুসংবাদ।

দেশের বিনিয়োগ পলিসি শিল্পবান্ধব উল্লেখ করে পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, বাংলাদেশ সরকার যে বিনিয়োগ পলিসি প্রণয়ন করেছে তা শতভাগ শিল্প ও বিনিয়োগবান্ধব। 

উদ্বোধন শেষে স্টল পরিদর্শন করছেন অতিথিরা

উদ্বোধন শেষে অন্যান্য অতিথিদের সঙ্গে প্রদর্শনীর সব স্টল পরিদর্শন করেন পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। 

দুই দিনের প্রদর্শনীর মূল উদ্দেশ্য হলো- বাংলাদেশের বস্ত্র ব্যবসায়ীদের সাথে দক্ষিণ এশীয় ব্যবসায়ীদের একটি সুসম্পর্ক গড়ে তোলা। আয়োজকরা এ প্রসঙ্গে জানান, বিশ্বের ১০টি দেশের ৬০টি বস্ত্র সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান তাদের তৈরি পোশাক নিয়ে হাজির হয়েছেন প্রদর্শনীতে। 

এই প্রদর্শনীতে ভারতের বিখ্যাত পোশাক কোম্পানী আদিত্য বিরলা (রাইসিল), সেঞ্চুরি এনকা, গারওয়ারে বেচট্রেচ, ডাব্লিউ এফ বি বেয়ার্ড, মাফাতলাল লিমিটেডের মতো আরও অনেক নামকরা প্রতিষ্ঠান এ বছর অংশগ্রহণ করে।

প্রদর্শিত পণ্যের সমাহার

এ বছরই প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার বস্ত্র প্রতিষ্ঠানগুলো অংশগ্রহণ করেছে। রয়েছে তাইওয়ানেরও খ্যাতনামা কিছু প্রতিষ্ঠান। নেদারল্যান্ডসও হাজির হয়েছে তাদের সার্কুলার ফ্যাশন নিয়ে। 

এই ধরনের পোশাক প্রদর্শনীর আয়োজন বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের সাথে দক্ষিণ এশীয় মানুষের যোগাযোগ বাড়াবে পাশাপাশি সফলতার সম্ভাবনার দ্বারকে খুলে দেবে বলে মনে করছেন আয়োজকরা। 

প্রদর্শনীতে ফ্যাব্রিক্স, ফাইবার এবং সুতা, ডাই, কেমিকেলসের আনুষঙ্গিক বিষয়গুলো প্রাধান্য পায়। 

অনুষ্ঠানে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাক্সপেনশনের ব্যবস্থাপক মিস প্রিয়াংকা খান্না সার্কুলার ফ্যাশনকে তুলে ধরে ‘ফ্যাশন ফর গুড’-এর শুভ সূচনাকে সবার সামনে নিয়ে আসেন।  

অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা

‘ইনটেক্স সাউথ এশিয়া ২০১৯’ দেশীয় ব্যবসায়ীদের আন্তর্জাতিক টেক্সটাইল সরবরাহকারীদের সাথে সংযোগ স্থাপন করার সবচেয়ে শক্তিশালী প্ল্যাটফর্ম।

ওডি/এমআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড