• শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ৫ মাঘ ১৪২৫  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

সামনে ব্যবসা, পেছনে ডাকাতি!

  অধিকার ডেস্ক    ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২১:০৬

ডাকাত চক্রের সদস্য
গ্রেফতারকৃত ডাকাত চক্রের সদস্যরা (ছবি : সংগৃহীত)

গাজীপুরের টঙ্গীর আফতার প্লাজায় পোদ্দার জুয়েলারি দোকানের মালিক প্রদীপ পোদ্দার। গত তিনবছর ধরে সে ডাকাতির স্বর্ণালঙ্কার ক্রয় করে আসছিল। একপর্যায়ে পুরো চক্রটিকে তিনি হাত করে ফেলেন। এমনকি তাদের বাবার দায়িত্ব নিয়ে নেন তিনি। চক্রের সদস্যদের আর্থিক সাহায্যসহ কেউ মামলায় ফেঁসে গেলে কারাগার থেকে বের করে নিয়ে আসার জন্য উকিলও ঠিক করতেন তিনি।

শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান র‍্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম। 

সংঘবদ্ধ এ চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৫ ভরি স্বর্ণের অলঙ্কার, চারটি মোবাইল সেট ও ১১ হাজার টাকাসহ বেশকিছু কষ্টিপাথর উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- জুয়েলারি দোকানের মালিক প্রদীপ পোদ্দার (৪১)। তার সহযোগীরা হলেন কাপড় ব্যবসায়ী দুলাল হোসেন (৩০), ও তার স্ত্রী হাজেরা বেগম ওরফে আজান, মো. রাসেল (২২) জাকির হোসেন (২৬), ও কোকিলা বেগম। 

র‌্যাব অধিনায়ক বলেন, ‘চক্রের অন্য সদস্য কাপড় ব্যবসায়ী দুলাল হোসেন। সে বিভিন্ন বাসায় বাসায় ঘুরে কাপড় বিক্রি করে। বিক্রির সময় বাসায় শুধু বৃদ্ধ মহিলা থাকলে দলবল নিয়ে পরিকল্পিতভাবে ওই বাসায় ডাকাতি করেন।’

সারওয়ার বিন কাশেম বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে উত্তরা এবং টঙ্গি এলাকায় বাসাবাড়িতে ডাকাতি হচ্ছে এমন একটি অভিযোগ পেয়ে আসছি আমরা। তার ভিত্তিতে অনেকদিন ধরে গোয়েন্দা নজরদারি চালিয়ে গতকাল রাতে বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। আসামি পোদ্দার গত দশবছর ধরে জুয়েলারি ব্যবসার পাশাপাশি ইয়াবার ব্যবসাও করে আসছিল। আসামি দুলাল এর আগে তিনবার গ্রেফতার হয়ে জেল খেটেছিল।’

 

অপরাধের সূত্রপাত কিংবা ভোগান্তির কথা জানাতে সরাসরি দৈনিক অধিকারকে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড