• রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮  |   ৩৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চুরি হওয়া মোবাইলের ইএমআই নম্বর বদলাতো তারা

  অধিকার ডেস্ক

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৬:০৩
মোবাইলের ইএমআই নম্বর বদলাতো তারা
মোবাইলের ইএমআই নম্বর বদলাতো তারা (ছবি : সংগৃহীত)

দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে চুরি বা ছিনতাই হওয়া মোবাইলগুলো তাদের কাছে আসতো। পরে একটি সফটওয়্যার ব্যবহার করে সেসব মোবাইলফোনের ইএমআই নম্বর বদলে বিক্রি করতো চক্রটি।

র‌্যাব বলছে, ইএমআই নম্বর বদলানো হলে চোরাই মোবাইল খুঁজে পাওয়া সম্ভব নয়। গ্রেপ্তারকৃতরা রাজধানীর চোরাই মোবাইল সংগ্রহ করে এ কাজটি করতো।

গত বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে পল্টন ও তেজগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে এ চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে র‌্যাব জানায়, ওরা একটি বিশেষ সফটওয়ারের মাধ্যমে চোরাই মোবাইলের ইএমআই নম্বর বদলে দিত। ওই মোবাইল দিয়ে পরে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকায় আরও কয়েকজনের বিষয়ে খতিয়ে দেখছে র‌্যাব।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন শফিকুল ইসলাম (২৫), মাসুদ আহমেদ রানা (৩২), মো. ইমন (২৩), সিরাজ আলি (৩০), রানা হাজরা (২৬) ও আলামিন (১৯)। তাদের কাছ থেকে একটি কম্পিউটার, সাতটি মোবাইলের আইএমইআই নম্বর পরিবর্তনের সফটওয়্যার, ২০টি মোবাইল ও নগদ ৬৬,৮৫০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব ১০-এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান বলেন, মোবাইলের ইএমআই নম্বর পরিবর্তন করাটাই বড় অপরাধ। যে সফটওয়্যার তারা ব্যবহার করতো তা কিন্তু চাইলেই ডাউনলোড করা যায় না। সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তিরাও এর সঙ্গে জড়িত। যারা বাংলাদেশ এ কাজ করছে তারা প্রত্যেকেই অপতৎপরতায় লিপ্ত। পুরো কার্যক্রমটি অবৈধ।

মাহফুজুর রহমান আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা নিজেরাই ওই অ্যাপের মাধ্যমে চোরাই মোবাইলের ইএমআই নম্বর বদলাতো। এ চক্রের মধ্যে কয়েকজন ব্যবসায়ীও রয়েছে, যারা ওই সফটওয়্যার ও অ্যাপস সরবরাহ করতো। তাদের বিষয়েও র‌্যাব নজরদারী বাড়িয়েছে। তাদেরকে গ্রেপ্তারেও অভিযান চালানো হবে।

ওডি

অপরাধের সূত্রপাত কিংবা ভোগান্তির কথা জানাতে সরাসরি দৈনিক অধিকারকে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড