• বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পাপিয়ার বিলাসবহুল বাড়ি-গাড়ি, নামে-বেনামে বিপুল অর্থ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:০৩
পাপিয়া
স্বামীর সঙ্গে পাপিয়া (ছবি : সংগৃহীত)

বহিষ্কৃত যুবলীগ নেত্রী শামীমা নুর পাপিয়ার নামে ঢাকা ও নরসিংদীতে বাড়ি এবং বিলাসবহুল গাড়িসহ নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ সম্পদের খোঁজ পেয়েছে র‌্যাব।

রাজধানীর বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে তরুণী নারীদের অসামাজিক কাজে ব্যবহার করে অর্থ আয় করত এই পাপিয়া। পাশাপাশি রেলওয়ে ও পুলিশের উপপরিদর্শক বা এসআই পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেন তিনি।

রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে ফার্মগেট এলাকায় পাপিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১টি বিদেশি পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন, ২০ রাউন্ড গুলি, ৫টি পাসপোর্ট, ৩টি চেক, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, বিভিন্ন ব্যাংকের ১০টি এটিএম কার্ড, বিদেশি ডলার, ৫ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন।

রবিবার বিকালে কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল এ তথ্য জানান। 

শাফী উল্লাহ বুলবুল বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ফার্মগেট ইন্দিরা রোডে পাপিয়ার ২টি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট, নরসিংদীতে ২টি ফ্ল্যাট, দুই কোটি টাকা মূল্যের ২টি প্লট, ৪টি বিলাসবহুল গাড়ি। গাড়ির ব্যবসায় তার প্রায় দেড় কোটি টাকা বিনিয়োগের সন্ধান পাওয়া গেছে। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন ব্যাংকে নামে-বেনামে একাধিক অ্যাকাউন্টে বিপুল পরিমাণ টাকা জমা আছে।

পাপিয়া ও তার স্বামী  মিলে রেলওয়ে ও পুলিশের উপপরিদর্শক পদে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ১১ লাখ টাকা, একটি সিএনজি পাম্পের লাইসেন্স করে দেওয়ার কথা বলে ২৯ লাখ টাকা, একটি কারখানায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ার কথা বলে ৩৫ লাখ টাকা নেওয়ার প্রমাণ মিলেছে। এছাড়া নরসিংদীতে মাদক, অস্ত্র ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা আয় করেছেন।

আরও পড়ুন : পাপিয়ার পাপের সাম্রাজ্য যত বড়

তিনি আরও বলেন, পাপিয়ার উপার্জনের অন্যতম উৎস সুন্দরী নারীদের দিয়ে জোর করে অসামাজিক কাজ করানো। ঢাকার বিভিন্ন পাঁচতারকা হোটেলে তরুণী মেয়েদের দিয়ে জোরপূর্বক অনৈতিক কাজে বাধ্য করতেন তিনি। তাদের বেশিরভাগই নরসিংদী থেকে চাকরি দেওয়ার প্রলোভনে ঢাকায় এনেছিলেন পাপিয়া। অনৈতিক কাজে রাজি না হলে ওইসব মেয়েদের শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন তিনি।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) শাহজালাল বিমানবন্দর হয়ে ঢাকা ত্যাগের সময় শামীমা নুর পাপিয়া ওরফে পিউসহ ৪ জনকে আটক করে র‌্যাব।

প্রসঙ্গত, গত বছরের নভেম্বর মাসে হোটেল ওয়েস্টিনের ২১ তলার প্রেসিডেন্ট রুমটি ভাড়া নেন পাপিয়া নামের এই নারী। বিগত ৩ মাস যাবত ওই কক্ষের ভাড়া বাবদ প্রায় ৮৮ লাখ টাকা পরিশোধ করেছেন তিনি। হোটেল ওয়েস্টিনের ১৯ তলায় একটি বার আছে, সেটি তিনি পুরোটাই বুক করে নিতেন। সেখানে প্রত্যেক দিন তিনি মদের বিল বাবদ আড়াই লাখ টাকা পরিশোধ করতেন। সব মিলিয়ে গত ৩ মাসে হোটেল কর্তৃপক্ষকে প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ টাকার বিল পরিশোধ করেছেন পাপিয়া। যিনি নারী সংক্রান্ত অপকর্ম ছাড়াও অবৈধ অর্থ পাচার, জাল টাকা সরবরাহ, চাঁদাবাজি, জিম্মি করে টাকা আদায়, তদবির বাণিজ্য, মাদক ব্যবসা, প্রতারণার সঙ্গে জড়িত।

ওডি/টিএএফ

অপরাধের সূত্রপাত কিংবা ভোগান্তির কথা জানাতে সরাসরি দৈনিক অধিকারকে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড