• শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভারত থেকে যেভাবে অস্ত্র আনা হয় বাংলাদেশে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:১২
ব্রিফ করছেন পুলিশের ডিসি মশিউর রহমান
ব্রিফ করছেন পুলিশের ডিসি মশিউর রহমান (ছবি: দৈনিক অধিকার)

রাজধানীর মিরপুর মডেল থানার বিপরীতে কোরিয়া কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সামনে থেকে অস্ত্র ব্যবসায়ী মো. হাফিজুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগের একটি টিম।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান ডিএমপির গোয়েন্দা উত্তর বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান।

মশিউর বলেন, সোমবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে চারটি বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও ১৭ রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্র ব্যবসায়ী হাফিজকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত হাফিজুর রহমান তার সহযোগী মো. হাবিবুর রহমান বিশ্বাস ও জিল্লুরের মাধ্যমে ভারত থেকে বেনাপোল হয়ে চোরাই পথে অবৈধ অস্ত্র-গুলি বাংলাদেশে আমদানি করত।

এ সময় তিনি ভারত থেকে কীভাবে বাংলাদেশে অস্ত্র আসত, তারও বিশদ বর্ণনা দেন। 

তিনি বলেন, অস্ত্র-গুলি প্রথমে বিহার থেকে কলকাতার অস্ত্র ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায় যে কোনো গোপন স্থানে রাখা হয়। পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের প্রয়োজন মতো ও দরকষাকষি চূড়ান্ত হলে কলকাতার উত্তর চব্বিশ পরগনার আংরাইল নামক সীমান্তবর্তী গ্রাম ও বাংলাদেশের বেনাপোল পুটখালী গ্রামের নদীতে গোসল করার কৌশলে অবৈধভাবে অস্ত্র নিয়ে আসা হয়। তারপর সুযোগ বুঝে এবং প্রয়োজন অনুযায়ী অস্ত্রগুলো সীমান্তের গোপন স্থান থেকে বের করে ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য স্থানে পৌঁছে দেয়।

মশিউর বলেন, তাদের এ অস্ত্র সন্ত্রাসী কার্যকলাপ, জঙ্গি গোষ্ঠী, রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিসহ নানা ধরনের নাশকতামূলক বা সন্ত্রাসী কার্যকলাপে ব্যবহার হয়ে থাকে। হাবিবুরের মাধ্যমে ভারতের উত্তর চব্বিশ পরগনার বনগ্রাম গ্রামের জাহাঙ্গীর নামক ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করলে জাহাঙ্গীর প্রত্যেকটি অস্ত্রের জন্য ৩০ হাজার করে টাকা নিয়ে থাকে। যার বিনিময়ে জাহাঙ্গীর ভারত থেকে অস্ত্র-গুলি সরবরাহ করে থাকে। সরবরাহ করা অস্ত্র বাংলাদেশে এনে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে উচ্চ দামে বিক্রয় করা হয়।

এ সংক্রান্তে মিরপুর মডেল থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানান ডিবি পুলিশের এ কমকর্তা।

ওডি/এমআই

অপরাধের সূত্রপাত কিংবা ভোগান্তির কথা জানাতে সরাসরি দৈনিক অধিকারকে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড