• সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শিরোপা যদি ভাগ করে নেওয়া যেত : স্টোকসের বাবা

  ক্রীড়া ডেস্ক

১৫ জুলাই ২০১৯, ১৯:০৩
জেরার্ড স্টোকস
ছেলেন বিশ্বকাপ জয়ের প্রতিক্রিয়ায় বাবা জেরার্ড ও মা ডেবোরাহ (ছবি: সংগৃহীত)

ছেলে ইংল্যান্ডের খেলোয়াড় হলেও বাবা জেরার্ড স্টোকস ছিলেন নিউজিল্যান্ডের সমর্থক। জন্মসূত্রে তিনি তো খাঁটি নিউজিল্যান্ডের অধিবাসী। জাতীয় দলের রাগবি খেলোয়াড় ছিলেন তিনি। পরবর্তীতে কোচিং ক্যারিয়ার গড়তে পাড়ি জমিয়েছেন ইংল্যান্ডে। ক্রাইস্টচার্চে জেরার্ডের স্থায়ী বাড়িও আছে। ছেলে বেন স্টোকসেরও জন্মও ক্রাইস্টচার্চের ক্যান্টারবেরিতে। এমনকি স্কুল জীবনের কয়েক বছর নিউজিল্যান্ডে কেটেছে বেনের। 

তাইতো বিশ্বকাপ ফাইনালে মনেপ্রাণে পিতা চেয়েছিলেন ছেলের হার। কারণ প্রিয় জন্মভূমির প্রতি আকৃত্রিম ভালোবাসা থেকে জেরার্ড স্বাভাবিকভাবে কিউই দলের সমর্থক ছিলেন। ম্যাচের আগে থেকে ছেলের হার কামনা করলেও শেষ পর্যন্ত শিরোপা জিতেছে ছেলের দল ইংল্যান্ড। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচটি টাই হয়েছে পঞ্চাশ ওভার ও সুপার ওভারেও। নিউজিল্যান্ড না হেরেও শিরোপা হাতছাড়া করায় মনখারাপ জেরার্ডের।  

সংবাদ মাধ্যমে জেরার্ড জানান, 'ব্ল্যাক ক্যাপসদের জন্য সত্যি খারাপ লাগছে আমার। বেনের জন্য আনন্দ হচ্ছে, তবে আমি এখনো নিউজিল্যান্ডের সমর্থক'।শিরোপা নির্ধারণে বাউন্ডারির নিয়ম নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন জেরার্ড। তিনি বলেন, 'সিদ্ধান্ত নিতে এই নিয়ম গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হয়নি। শিরোপাটা ভাগাভাগি করে দেওয়া যেত যদি, তবে এ নিয়মের প্রচলন নেই আর।'

বেন স্টোকসের মা ডেবোরাহও ছিলেন অনেক আবেগপ্রবণ- 'খেলা শেষে খুব কেঁদেছি। ব্ল্যাক ক্যাপদের জন্য খারাপ লেগেছে। ফলাফল নিষ্পত্তি না হলে সবচেয়ে ভালো হতো।' বেন স্টোকসের বাবা জেরার্ড স্টোকস ছিলেন নিউজিল্যান্ড রাগবি জাতীয় দলের খেলোয়াড়। রাগবি টেস্ট দলের সদস্যও ছিলেন তিনি। ১৯৭০ ও আশির দশকে নিউজিল্যান্ডের হয়ে রাগবি খেলেছেন তিনি। তবে খেলোয়াড়ের চেয়েও কোচ হিসেবে বেশি নাম কুড়িয়েছেন জেরার্ড। সার্বিয়া জাতীয় দলের কোচ হিসেবও দায়িত্ব পালন করেন তিনি।  

ছেলের পারফরম্যান্সে হেরেছে জন্মভূমি নিউজিল্যান্ড। ম্যাচ শেষে তাই বিব্রত ছিলেন যেমন তেমনি কষ্ট হচ্ছিল জেরার্ড ও ডেবোরাহর। জেরার্ড নিজেকে ঘৃণিত বাবা হিসেবে দেখছেন নিউজিল্যান্ডবাসীর কাছে। লর্ডসে তার ছেলের ৮৪ রানে ভর করেই তো ম্যাচ টাই হয়েছে। সুপার ওভারেও ছেলে স্টোকস ব্যাট করেছেন। আফসোস করেই জেরার্ড বলেন, ছেলে নিউজিল্যান্ডের স্বপ্ন ভেঙে দেওয়ায় এখন তিনি দেশের সবচেয়ে ঘৃণিত বাবা। 

১৬ বছর ধরে স্টোকস ইংল্যান্ডে থাকায় নাগরিত্ব পেয়েছেন অনেক আগে। অপরদিকে, ২০১৩ সাল থেকে ক্রাইস্টচার্চে স্থায়ীভাবে বাস করছেন জেরার্ড। বর্তমানে ছেলেদের জেলখানার কনস্ট্রাকশন প্রোগ্রামে সুপারভাইজার তিনি। ওয়ার্কিংটন টাউন রাগবি লিগ ক্লাবের কোচ হতে জেরার্ড স্টোকস ইংল্যান্ডে পাড়ি জমিয়েছেন পরিবারসুদ্ধ। তার ফলে নিউজিল্যান্ডে জন্ম নেওয়া বেন স্টোকস হয়ে গেছেন ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়। 

ওডি/এনএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড