• মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

বুড়োদের ম্যাড়ম্যাড়ে বিশ্বকাপ

  ক্রীড়া ডেস্ক

১২ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৫
মাশরাফি, ধোনি, গেইল, মালিঙ্গা
বাঁ থেকে মাশরাফি, ধোনি, গেইল, মালিঙ্গা (ছবি: সংগৃহীত)

বিশ্বকাপের আর মাত্র একটি ম্যাচ বাকি। ৪৭ ম্যাচ শেষে ইতোমধ্যেই বাড়ি ফিরেছে ৮ দলের ১২০ জন ক্রিকেটার। আবার চার বছর পর বিশ্বকাপের আসর বসলেও এ বিশ্বকাপেই নিজেদের ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ খেলে ফেলছেন অনেক তারকা ক্রিকেটার। তবে শেষ বিশ্বকাপ খেলা বেশিরভাগ ক্রিকেটারই ব্যর্থ হয়েছেন চলতি বিশ্বকাপে। চাঁদের কলঙ্কের মতই তাদের সফল ক্যারিয়ারের শেষটা রঙিন হলো না।

চলতি বিশ্বকাপেই যারা খেলে ফেলেছেন ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ তাদের পারফরম্যান্সের দিকে চোখ বুলিয়ে নেয়া যাক:

মাশরাফি বিন মর্তুজা:
এ বিশ্বকাপের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মাশরাফি। ইনজুরিতে দেশের মাটিতে ২০১১ সালের বিশ্বকাপটা মিস না হলে এটা হতে পারত তার পঞ্চম বিশ্বকাপ।  মাশরাফির নেতৃত্বেই টাইগারদের বদলে যাওয়ার সূচনা হয়। টানা দুই বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দেয়া একমাত্র বাংলাদেশী অধিনায়ক তিনি। এছাড়া বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল বোলার মাশরাফি। টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ ২৬৩ উইকেট তার। ইতোমধ্যেই 'ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাস্টিক' মাশরাফি ঘোষণা দিয়ে ফেলেছেন এটাই তার ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ। তবে অধিনায়কের শেষটা কেটেছে দুঃস্বপ্নের মত। আগের তিন বিশ্বকাপে ১৬ ম্যাচ খেলে ১৮ উইকেট শিকার করা মাশরাফি এ বিশ্বকাপে পেয়েছেন মাত্র একটি উইকেট! ৮ ম্যাচে বল ঘুরিয়ে ৩৬১ রান দিয়েছেন তিনি। আর ৫ ইনিংসে ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়ে ৮.৫০ গড়ে তিনি করেছে মাত্র ৩৪ রান।

মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত) :
ভারতের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ এসেছে ধোনির নেতৃত্বে। এছাড়া তার নেতৃত্বেই ২০০৭ সালের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। 'ক্যাপ্টেন কুল' উপাধি পাওয়া ধোনি ক্রিকেটার হিসেবেও সফল। তবে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ১০০০০'র উপরে রান করা এ অধিনায়কের শেষ বিশ্বকাপটা মলিন কেটেছে। এই বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচের ৮ ইনিংসে ৪৫.৫০ গড় আর ৮৭.৭৮ স্ট্রাইক রেটে ধোনি করেছেন ২৭৩ রান। যার মধ্যে সর্বোচ্চ ৫৬ রান 

ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) :
বিশ্বের অন্যতম বিধ্বংসী ক্রিকেটার হিসেবেই পরিচিত গেইল। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৮ হাজারেরও বেশি রান করেছেন তিনি। যেখানে ওয়ানডেতে ২৮৯ ম্যাচ খেলে করেছেন ১০১৫১ রান! টেস্টে ১০৩ ম্যাচে ৭২১৪ এবং টি-টুয়েন্টিতে মাত্র ৫৮টি ম্যাচে করেছেন ১৬২৭ রান! বোলারদের জন্য ত্রাস সৃষ্টিকারী এ ব্যাটসম্যান এবারের বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচের ৮ ইনিংসে ব্যাটিং করে ৩০.২৫ গড় আর ৮৮.৩২ স্ট্রাইক রেটে তিনি করেছেন মাত্র ২৪২ রান। এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রান ৮৭।

শোয়েব মালিক (পাকিস্তান) : 
পাকিস্তানের এ সাবেক অধিনায়কের এটি শেষ বিশ্বকাপ। তার শেষটাও ব্যর্থতায় মোড়ানো। ভারতের বিপক্ষে শূন্য রানে আউট হওয়ায় হয়েছিলেন তীব্র সমালোচনার শিকার। পাকিস্তানের মিডল অর্ডারের অন্যতম ভরসা মালিক চলতি বিশ্বকাপে ৩ ইনিংসে ব্যাট করে সংগ্রহ করেছেন মাত্র ৮ রান।

মোহাম্মদ হাফিজ (পাকিস্তান): 
পাকিস্তানের আরেক অভিজ্ঞ সেনানী হাফিজ। মালিক ও হাফিজের অভিজ্ঞতার ওপর ভর করেই বিশ্বকাপে এসেছিল পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচসেরা হলেও হাফিজের বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় মোড়ানো। এই দুইজনের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের বিশ্বকাপ যাত্রা শেষ হয়েছে গ্রুপ পর্বে। ৮ ইনিংসে ব্যাট করে হাফিজের সংগ্রহ ২৫৩ রান, গড় ৩১! হাফিজও খেলে ফেলছেন নিজের শেষ বিশ্বকাপ।

লাসিথ মালিঙ্গা (শ্রীলঙ্কা) :
ভিন্নধর্মী একশনের জন্য বহুল পরিচিত শ্রীলঙ্কার এ কিংবদন্তি বোলার। তার ইয়র্কারে কুপোকাত হয়েছেন বিশ্বের অনেক ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যানও। ক্যারিয়ারে সর্বমোট ২২৫ ওয়ানডে খেলেছেন তিনি। ২১৯ ইনিংসে বল করে শিকার করেছেন ৩৩৫ উইকেট। এ বিশ্বকাপেও ৭ ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে দলের সেরা বোলার তিনি। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দলকে জেতানো ছাড়া আর আগের মত ত্রাস সৃষ্টি করতে পারেননি।

হাশিম আমলা (দক্ষিণ আফ্রিকা):
বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান ভাবা হয় আমলাকে। তবে পুরো ক্যারিয়ারজুড়ে ধারাবাহিক ব্যাটিং করা এ ব্যাটসম্যানের বিশ্বকাপটা ভালো যায়নি। ৭ ইনিংসে ব্যাট করে তিনি রান করেছেন ২০৩।

ইমরান তাহির (দক্ষিণ আফ্রিকা):
দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে শেষ বিশ্বকাপ খেলতে আসা তাহিরও ব্যর্থ হয়েছেন। ৯ ম্যাচে বোলিং করে এ লেগ স্পিনার শিকার করেছেন মাত্র ১১ উইকেট।

ওডি/এমএমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড