• মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

বিশ্বকাপ ফাইনাল : ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড পরিসংখ্যানে কারা এগিয়ে?

  ক্রীড়া ডেস্ক

১২ জুলাই ২০১৯, ১১:৫২
ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড দল
ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড দল (ছবি : সংগৃহীত)

বিশ্বকাপের প্রথম সেমি-ফাইনালে ফেভারিট ভারতকে ১৮ রানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে নিউজিল্যান্ড। ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করে কিউইরা অপেক্ষায় ছিল প্রতিপক্ষ হিসেবে কারা উঠছে ফাইনালে। অপেক্ষা শেষে ব্ল্যাক ক্যাপ শিবির জেনে গেলো শিরোপার যুদ্ধে তাদের প্রতিপক্ষ স্বাগতিক ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) অস্ট্রেলিয়ার হেক্স মিশন থামিয়ে বিশ্বকাপের ফাইনালে জায়গা করে নেয় ইংলিশরা।

দ্বাদশ বিশ্বকাপের পর্দা নামতে আর একটি মাত্র ম্যাচ বাকি। রবিবার (১৪ জুলাই) ক্রিকেটের মক্কা লর্ডসের ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শিরোপা নিষ্পত্তির ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে ৩টায় শুরু হবে ম্যাচটি। 

এ নিয়ে মোট পাঁচবার বিশ্বকাপ আয়োজন করলো ইংল্যান্ড। এর আগে তিনবার ফাইনালে উঠলেও কখনও শিরোপার উচ্ছ্বাসে মেতে উঠতে পারেনি ক্রিকেটের জন্মভূমি। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের এটা দ্বিতীয় ফাইনাল। গতবারের ফাইনালে তারা হার মেনেছিল অস্ট্রেলিয়ার কাছ। আজ যে দলই জিতুক, ক্রিকেট বিশ্ব যে নতুন চ্যাম্পিয়ন পেতে যাচ্ছে এটা নিশ্চিত।

ভাগ্য যদি সহায় হয় তবে বদলে যেতে পারে যে কোনো কিছুই। গ্রুপ পর্বে এক সময় দুদলই খাদের কিনারায় চলে গিয়েছিল। অস্ট্রেলিয়া আর শ্রীলঙ্কার কাছে টানা দুই ম্যাচ হেরে বাদ পড়ার শঙ্কায় পড়ে যায় ইংলিশরা। কিন্তু ভারত আর নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সেমির টিকিট নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা। এখানেই শেষ নয়; সেমির টিকিট পেলেও অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে যাওয়াটা সহজ ছিল না ইংলিশদের। কিন্তু ক্রিকেটে সব সম্ভব; পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ৮ উইকেটে উড়িয়ে চতুর্থবারের মতো ফাইনালে ওঠে ইংল্যান্ড। আর এতেই শেষ হলো দীর্ঘ ২৭ বছরের অধীর অপেক্ষার। অর্থাৎ গুণে গুণে ঠিক ২৭ বছর পর বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে ইংরেজরা। 

অন্যদিকে, নিউজিল্যান্ডের শেষ চারে জায়গা পেতে কম নাটক হয়নি। শুরুতে টানা তিন ম্যাচ জিতে দারুণ শুরুর পর এক সময় পথভ্রষ্ট হয়ে কিউইরা হেরে যায় লিগ পর্বের শেষ তিন ম্যাচে। পাকিস্তানের সমান পয়েন্ট হলেও রান রেট তাদের এনে দিয়েছে শেষ চারের টিকিট। সেমির হট ফেভারিট ভারতকে হারিয়ে উইলিয়ামসন-বোল্টদের সামনে এখন শিরোপার হাতছানি। 

রবিবার কেমন হবে দুদলের শিরোপার লড়াই? তা হয়ত মাঠের খেলায় নির্ধারণ হবে। তার আগে আসুন জেনে নিই দুদলের ওয়ানডে ও বিশ্বকাপের পরিসংখ্যান- 

বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে ইংলিশদের প্রথম দেখা ১৯৭৫ এর বিশ্বকাপে। এই আসরের আয়োজক ছিল ইংল্যান্ড; ট্রেন্ট ব্রিজে সেইবার ৮০ রানে জয় পেয়েছিল স্বাগতিকরা। পরের আসরেও কিউইদের হারায় ইংল্যান্ড; এই আসরের আয়োজকও ইংল্যান্ড। সেমি-ফাইনালে ৯ উইকেটে কিউইদের হারিয়ে ফাইনালে যায় ইংলিশরা। যদিও ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৯২ রানে হেরে শিরোপা হাতছাড়া করে। 

এরপরের আসরেও কিউইদের সঙ্গে জয় পায় ইংল্যান্ড; ১০৬ রানের বড় জয় ছিল স্বাগতিকদের (এই আসরের আয়োজকও ইংল্যান্ড)। তবে একই আসরে নিউজিল্যান্ড প্রথম জয় পায়। ২ উইকেটে ইংলিশদের প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে হারাতে সক্ষম হয় কিউইরা। এই থেকেই শুরু নিউজিল্যান্ডের জয়ের ধারা; এরপর বিশ্বকাপের চারটি আসরে জয়হীন ছিল ইংলিশরা। 

৩২ বছর জয়ের খোঁজে থাকা ইংল্যান্ড ফের কিউইদের হারাতে সক্ষম হয় বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরে। নিজেদের মাটিতেই জয়ের স্বাদ পায় তারা। গ্রুপ পর্বে ১১৯ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে কিউইরা। এই জয়ে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে স্বাগতিকদের। ফাইনালে একই দলের সঙ্গে লড়াই; সেই সঙ্গে তাদের সুযোগ প্রথমবারের মতো শিরোপা ছোঁয়ার। 

বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি :

মোট ম্যাচ ৯টি 
ইংল্যান্ড জয়ী ৪টি 
নিউজিল্যান্ড জয়ী ৫টি 

এ তো গেলো বিশ্বকাপের ফলাফল; এবার দেখে নেওয়া যাক সব মিলিয়ে ওয়ানডেতে কারা এগিয়ে; বিশ্বকাপের মতো ওডিআইতেও কিউইদের জয়ের পাল্লা ভারী। আজ থেকে ৪৬ বছর আগে এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড। ১৯৭৩ সালে সেন্ট হেলেন অনুষ্ঠিত হওয়া প্রথম দেখায় ৭ উইকেটের জয় পায় ইংরেজরা। এর ঠিক ছয় বছর পর প্রথম জয় পায় কিউইরা। ১৯৮৩ সালে মেলবোর্নে নিউজিল্যান্ডের জয়টি ছিল ২ রানের। 

এই দুদলের সবশেষ দেখা বিশ্বকাপেই। যেখানে জয় ইংলিশদের। তবে ওডিআইতে গেলো বছর দুদলের শেষ দেখায় ইংল্যান্ড জিতেছে ৭ উইকেটে। পাঁচ ম্যাচে ওই সিরিজটিতে জয় পায় স্বাগতিকরা (৩-২ ব্যবধানে)। 


সবমিলিয়ে ওয়ানডেতে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি :

মোট ম্যাচ ৯০টি 
ইংল্যান্ড জয়ী ৪১টি 
নিউজিল্যান্ড জয়ী ৪৩টি 
ম্যাচ টাই ২টি 
   

বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড দল : ইউইন মরগান (অধিনায়ক), মঈন আলী, জোফরা আর্চার, জনি বেয়ারস্টো, জস বাটলার, টম কারান, লিয়াম প্লাঙ্কেট, লিয়াম ডওসন, আদিল রশিদ, জো রুট, জেসন রয়, বেন স্টোকস, লিয়াম ডওসন, ক্রিস ওকস, মার্ক উড।

বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড দল : কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলস, রস টেইলর, টম লাথাম, কলিন মুনরো, টম ব্লান্ডেল, জিমি নিশাম, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি, টিম সাউদি, ম্যাট হেনরি, লোকি ফার্গুসন, ট্রেন্ট বোল্ট।

ওডি/এএপি 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড