• সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

হাইকোর্টেও ব্যর্থ মিন্নির আইনজীবীরা, ঈদ কাটবে কারাগারে

  অধিকার ডেস্ক

০৮ আগস্ট ২০১৯, ১৭:০৬
আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি
স্বামীর শোকে কান্না করছেন আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি (ফাইল ফটো)

চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় নিহতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গত ১৬ জুলাই সকাল পৌনে ১০টার দিকে তার বাবার বাড়ি বরগুনা পৌর শহরের নয়াকাটা-মাইঠা থেকে পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে আনা হয়। এরপর দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পর দিন মিন্নিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর বরগুনার আদালতে মিন্নির জামিন আবেদন জানালেও তার জামিন মেলেনি। নিম্ন আদালতে ব্যর্থ হয়ে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন মিন্নির আইনজীবীরা। এবার হাইকোর্টেও মিন্নির জামিন করাতে পারলেন না তার আইনজীবীরা।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) মিন্নির জামিন মেলেনি। হাইকোর্ট বলেছেন, বরগুনার আদালতে মিন্নি যে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন সেটি না দেখে, পর্যালোচনা না করে জামিন দিতে পারছি না। তবে আমরা জামিন বিষয়ে রুল দিতে পারি। রুল নিতে না চাইলে আপনারা (মিন্নির আইনজীবীদের উদ্দেশে) আবেদন ফেরত নিতে পারেন।

তখন মিন্নির জামিন আবেদন ফেরত নিতে আইনজীবী আদালতের কাছে আবেদন করেন। আদালত তখন রুল না দিয়ে জামিন আবেদনটি ফেরত দেন।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান ও বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এর আগে মিন্নির জামিন আবেদনের ওপর ১ ঘণ্টা শুনানি হয়।

আদালতে মিন্নির পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জেড আই খান পান্না ও ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মোমতাজ উদ্দিন ফকির।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে আজকের অফিস সময়ের পর শুরু হয়েছে সরকারি ছুটি। সে হিসেবে ঈদের আগে আদালতে আজই ছিল শেষ কর্মদিবস। এদিন জামিন না পাওয়ায় কারাগারেই ঈদ করতে হচ্ছে মিন্নিকে।

বরগুনা সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনের রাস্তায় ২৬ জুন সকাল ১০টার দিকে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। বিকাল ৪টায় বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এ হত্যার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী তোলপাড় শুরু হয়। পরে দ্বিতীয় একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে হত্যায় মিন্নির সম্পৃক্ততা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।

২৭ জুন রিফাত শরীফের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ বরগুনা থানায় ১২ জনের নামে এবং চার-পাঁচজনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা করেন। প্রধান আসামি নয়ন বন্ড ২ জুলাই ভোরে পুলিশের সঙ্গে কথিত 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত হয়।

ওডি/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড