• সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন

সেই ঘাতক সাকিব এখন কারাগারে

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ০৫ নভেম্বর ২০১৮, ২২:২১

বখাটে
নিহত আখি আক্তার ও বখাটে সাকিব হোসেন

নারায়ণগঞ্জের পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেনির ছাত্রী আখি আক্তারকে আত্মহত্যা প্ররোচনাকারী মামলায় আসামি সাকিব হোসেনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার (৫ নভেম্বর) নারায়ণগঞ্জ আদালতে জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করলে কারাগারে পাঠায়। 

জানা যায়, উপজেলার পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেনির ছাত্রী আখি আক্তারকে গত ৬ মাস ধরে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার সময় প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল নানাখী গ্রামের মনির হোসেনের ছেলে বখাটে সাকিব হোসেন। তার প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় সাকিব হোসেন তার সহযোগীদের নিয়ে ১০ অক্টোবর (মঙ্গলবার) বিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ওই ছাত্রীকে এলোপাথারিভাবে পেটায়। এসময় পাকা রাস্তায় পড়ে তার মুখমণ্ডল রক্তাক্ত হয়। 

এ ঘটনার ৫ দিন পর ১৫ অক্টোবর (সোমবার) পুলিশ অভিযান চালিয়ে বখাটে সাকিব হোসেনকে আটক করে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহীনুর ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সাকিব হোসেনকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেন। পরে ১৫ দিনের কারাভোগের পর ৩১ অক্টোবর (বুধবার) রাতে স্কুল ছাত্রীর মুঠোফোনে বখাটে সাকিব হোসেন অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে হুমকি দেয়। পরে রাত ২টায় গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুল ছাত্রী আখি আক্তার আত্মহত্যা করে। 

এ ঘটনায় স্কুল ছাত্রী আখি আক্তারের বাবা শাহ জাহান মিয়া বাদী হয়ে বখাটে সাকিব হোসেনকে একমাত্র আসামি করে সোনারগাঁও থানায় আত্মহত্যা প্ররোচনাকারী মামলা দায়ের করেন। 

এদিকে স্কুল ছাত্রী আখি আক্তারের আত্মহত্যার প্ররোচনায় দেওয়ার কারণে বখাটে সাকিব হোসেনের ফাসিঁর দাবিতে স্থানীয় এলাকাবাসী ও আখির স্কুলের পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অব্যাহত রেখেছেন। 

ঘটনার ৫ দিন পর ৫ নভেম্বর (সোমবার) সাকিব হোসেন নারায়ণগঞ্জ আদালত উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন করেন। আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড