• শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৭  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হলি আর্টিজান মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে

  অধিকার ডেস্ক

০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:০০
হলি আর্টিজান
গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁ (ছবি : সংগৃহীত)

গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় সন্ত্রাসী হামলা মামলায় সাতজনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য (ডেথ রেফারেন্স) মামলার যাবতীয় কার্যক্রম হাইকোর্টে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) বিকালে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল থেকে মামলার এজাহার, চার্জশিট, সাক্ষীদের জবানবন্দি ও রায়সহ যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টে পাঠানো হয়।

ফৌজদারি কার্যবিধি অনুসারে বিচারিক আদালতে মৃত্যুদণ্ড‍াদেশ হলে মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য মামলার যাবতীয় কার্যক্রম উচ্চ আদালতে পাঠাতে হয়।

এছাড়া এ মামলার রায় অনুযায়ী আসামিরা আইন অনুয়ায়ী উচ্চ আদালতে আপিল করতে পারবেন।

গত ২৭ নভেম্বর ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান এ মামলায় একজনকে খালাস দিয়ে সাতজনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন।

এর আগে সংশ্লিষ্ট আদালতের পেশকার পারভেজ ভূঁইয়া এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘মামলার এজাহার, জব্দ তালিকা, চার্জশিট, সাক্ষীদের সাক্ষ্য, রায়সহ মোট দুই হাজার ৩০৭ পৃষ্ঠার যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে রায় ১৩৪ পৃষ্ঠা। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখা নথিপত্র রিসিভ করেছে।’

গত ২৭ নভেম্বর ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান আলোচিত এই মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে আট আসামির মধ্যে সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান নামে এক আসামিকে খালাস দেয়া হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন—অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহকারী নব্য জেএমবি নেতা হাদিসুর রহমান সাগর, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক তামিম চৌধুরীর সহযোগী আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে আবু জাররা ওরফে র‌্যাশ, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব ওরফে রাজীব গান্ধী, হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী আব্দুস সবুর খান (হাসান) ওরফে সোহেল মাহফুজ, মামুনুর রশিদ ও শরিফুল ইসলাম।

ওডি/এসএইচএস
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড