• শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাত্র ২০০ কোটি টাকা দিতে চায় গ্রামীণফোন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:২৮
টাকা
প্রতীকী ছবি

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালসহ দুই মন্ত্রীর উপস্থিতিতে সমঝোতার অংশ হিসেবে মাত্র ২০০ কোটি টাকা দিতে রাজি হয়েছে গ্রামীণফোন। যদিও প্রায় সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা পাওনার অর্ধেক দিতে গ্রামীণফোনকে প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

গ্রামীণফোনের আইনজীবী ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগকে এ তথ্য জানিয়েছেন। আপিল বেঞ্চে ছিলেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন ৬ বিচারক।

শুনানি শেষে সোমবার (১৮ নভেম্বর) আদেশের জন্য দিন ঠিক করেছেন আদালত। এ অবস্থায় বিটিআরসিকে গ্রামীণফোনের কত টাকা দেওয়া লাগবে তা আগামী সোমবার জানা যাবে।

বিটিআরসির দাবি, তারা গ্রামীণফোনের কাছে প্রায় ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা পাবে। গত ৩১ অক্টোবর আদালত জানতে চেয়েছিলেন, এখন গ্রামীণফোন কত টাকা দিতে পারবে। পাশাপাশি গ্রামীণফোনের আইনজীবীদের সময় আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত শুনানি মুলতবি হয়েছিল।

আদালতে আইনজীবী শেখ ফজলে নূর তাপস গ্রামীণফোনের পক্ষে শুনানি করেন। সঙ্গে আরও ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী মো. মেহেদি হাসান চৌধুরী ও এ এম আমিন উদ্দিন। সিনিয়র আইনজীবী মাহবুবে আলম বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন। তার সঙ্গে খন্দকার রেজা-ই-রাকিব ছিলেন।

আদালতে আইনজীবী শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, গত ৩ অক্টোবর অর্থমন্ত্রী ও আরেকজন মন্ত্রীর উপস্থিতিতে দুই পক্ষের প্রতিনিধিদের বৈঠক হয়। সেখানে ২শ কোটি টাকা দেওয়ার প্রস্তাব হয়। শর্ত ছিল বিটিআরসি গ্রামীণফোনের ওপর আরোপ করা প্রতিবন্ধকতা তুলে নেবে। এ প্রস্তাব অনুযায়ী ২ কিস্তিতে বিটিআরসিকে ওই টাকা দিতে সম্মত হয় গ্রামীণফোন।

এ সময় মাহবুবে আলম বলেন, গ্রামীণফোন বিটিআরসিকে কমপক্ষে পাওনা টাকার ৫০ শতাংশ জমা দিতে হবে। এরপর বাকি টাকা পরিশোধের ব্যাপারে কথা হবে।

এ দিন হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করার আরজি জানান মাহবুবে আলম। এ সময় বিষয়টি নমনীয় দৃষ্টিতে দেখতে বলেন আদালত।

ওডি/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড