• সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সেতুর ওপর বাঁশের সাঁকো, কেটে গেল ৯ বছর

  নেত্রকোণা প্রতিনিধি

২১ অক্টোবর ২০১৯, ২০:৪৫
কলমাকান্দা
ভাঙা অবস্থায় রয়েছে সড়কের সংযোগ সেতু (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নেত্রকোণার কলমাকান্দা উপজেলার রংছাতি ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর খালের ওপর স্থাপিত সেতুটি ভেঙে যাওয়ায় স্থানীয় ১০টি গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। তবে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন জরুরি রোগী ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রংছাতী মোড়-কৃষ্ণপুর বাজার সড়কের কৃষ্ণপুর খালের ওপর ২০০৪ সালে এ সেতুটি নির্মাণ করে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ। ২০১০ সালে বন্যার সময় সেতুটি ভেঙে পড়ে। সেই থেকে অদ্যাবধি ভাঙা সেতুর ওপর বাঁশের তৈরি সাঁকো তৈরি করে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। জনদুর্ভোগ লাঘব করতে স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে সেতুটি নির্মাণের দাবি জানিয়ে আসলেও কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না বলে জানান এলাকার বাসিন্দারা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আক্কাস আলীর সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, যাতায়াতের জন্য বিকল্প রাস্তা না থাকায় বাধ্য হয়েই ভাঙা সেতু দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। সেতুর দুই পাশে দুটি উচ্চ বিদ্যালয়, দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং একটি মাদ্রাসা রয়েছে। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ কৃষ্ণপুর বাজার, উত্তরপাড়া, দক্ষিণপাড়া, রায়পুর, বিশাউতি, বানাইকোণা, বুড়িমারীসহ ১০টি গ্রামের মানুষ প্রতিদিন এ সেতু দিয়ে যাতায়াত করে।

এ বিষয়ে কথা হলে রংছাতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাহেরা খাতুন বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন ভাঙা সেতুর ওপর স্থাপিত বাঁশের সাঁকো দিয়ে গর্ভবতী মায়েরা ও শিশু রোগী চিকিৎসার জন্য ক্লিনিকে যান। এছাড়া সেতুটি ভেঙে যাওয়ার পর থেকে এ রাস্তা দিয়ে কৃষিজাত পণ্য পরিবহন করাও খুব কঠিন হয়ে পড়েছে। ভাঙা সেতুর কারণে প্রায় সময়ই ছোট বড় দুর্ঘটনাও ঘটছে বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে কৃষ্ণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আজিজুল হক বলেন, ভাঙা সেতুর কারণে ছোট ছোট শিক্ষার্থীদের চলাচলে অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয়। এছাড়া বাঁশের সাঁকোটি দিয়ে পারাপার করতে গিয়ে অনেক সময় শিক্ষার্থীরা পানিতেও পড়ে যায়। স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করা হলেও কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না বলেও জানান হয়নি।

কলমাকান্দা উপজেলা প্রকৌশলী আফসার উদ্দিনের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং প্রায় ৩৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ওই সড়ক সংস্কারসহ একটি সেতু নির্মাণের জন্য প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড