• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিলে আনন্দ-উল্লাসে ‘হাইত উৎসব’

  ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

১৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:২৪
হাইত উৎসব
বিলে হাইত উৎসব ( ছবি : দৈনিক অধিকার )

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়নের জালিয়া বিলে হাজারো মানুষের মাছ ধরার মিলন মেলা ‘হাইত উৎসব’ উদযাপিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দিবাগত রাত ভোর হওয়ার আগে থেকে হাজার হাজার সৌখিন মাছ শিকারি তাদের জাল-পলোসহ মাছ ধরার সরঞ্জাম নিয়ে হই-হুল্লোড়ের মধ্যদিয়ে মাছ শিকার করে। সেই সঙ্গে স্থানীয়রাও তাদের দূর-দূরান্ত থেকে আসা আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের নিয়ে আনন্দ করে সারাদিন জালিয়া বিলে মাছ শিকার করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অনেক বছর আগে থেকেই খাল-বিল, জলাশয়ে ভরা ময়মনসিংহের বিভিন্ন এলাকায় হেমন্তকালে ‘হাইত উৎসব’ রেওয়াজ চলে আসছে। সেই ঐতিহ্য অনুসরণ করে এবারও বৃহস্পতিবার নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়নের জালিয়া বিলে হাইত উৎসবের আয়োজন করা হয়।

সাধারণত বছরের এ সময় খাল-বিলের পানি কমে হাঁটু সমান, কোনো কোনো ক্ষেত্রে কোমর সমান হয়ে এলে হাইত উৎসবের আয়োজন করেন বিলপারের মানুষরা। তারা একত্রে বসে দিন-তারিখ ঠিক করে দূর-দূরান্তের আত্মীয় স্বজনদের দাওয়াত দেন। সেই সঙ্গে এলাকায় মাইকিংও করার ব্যবস্থা করা হয়।

ছয় কিলোমিটার দূরের আচারগাঁও ইউনিয়ন থেকে আসা সৌখিন মাছ শিকারি রফিক (২৫) বলেন, গত বুধবার রাতেই পলো নিয়ে জালিয়া বিলপারের ঘোষপালা গ্রামের বোনের বাড়িতে বেড়ানোর পাশাপাশি মাছ শিকার করতে এসেছি। বৃহস্পতিবার সারাদিন মাছ না ধরলেও আধা বেলা মাছ ধরেছেন। তেমন বড় কোনো মাছ না পেলেও ছোট মাছ পেয়েছেন বলে জানান তিনি। তবে আত্মীয়-বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে এ আনন্দ আয়োজনে সামিল হতে পারায় আনন্দের কমতি হয়নি বলে জানান তিনি।

পাশের বাঁশহাটি গ্রামের অপর সৌখিন মাছ শিকারি মো. রুকন উদ্দিন (৩০) জানান, এখন বিলগুলোতে আর আগের মতো মাছ নেই। তাই হাইত আগের মতো জমেও না। তবু হাইত আয়োজনের খবর পেলে দূর-দূরান্ত থেকে দলে দলে সৌখিন মাছ শিকারিরা আগের দিনই প্রস্তুতি নিয়ে বিলপাড়ে জড়ো হয়ে যায়। ছেলে-বুড়ো রাত জেগে বসে থাকে ভোর হওয়ার অপেক্ষায়। আলো ফুটলেই একসঙ্গে সবাই বিলে হই-হুল্লোড়ে নেমে পড়ে মাছ ধরতে। তারপর যত না মাছ ধরা হয়, তার চেয়ে বেশি হয় আনন্দ-উল্লাস।

নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. এমদাদুল হক ভূঁইয়া জানান, ‘দূর-দূরান্ত থেকে অনেকেই এই উৎসব উপলক্ষ্যে আগের দিনই আমাদের এলাকায় চলে আসেন। তারা নিজ বাড়ি থেকে পিঠাপুলি নিয়ে আসেন। পরে সারা রাত ধরে বিলের পাড়ে বসে সবাই মিলে চিৎকার আর হই-হুল্লোড় করে সেগুলো খাওয়া হয়। ভোরের আলো ফুটলেই হাজার হাজার মানুষ একত্রে জাল ও পলোসহ মাছ ধরার সরঞ্জাম নিয়ে বিলে মাছ ধরতে নেমে পড়েন। ভাগ্য ভালো হলে কেউ বড় মাছ ধরেও ফেলেন। আবার কেউবা ফেরেন খালি হাতে। তবে তাতেও আনন্দের কমতি হয় না।’

ওডি/এসএএফ 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড