• শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ফাহাদ হত্যায় আসামি রবিন জামায়াত-শিবির পরিবারের সন্তান

  রাজু আহমেদ, রাজশাহী

১০ অক্টোবর ২০১৯, ২১:২২
মেহেদী হাসান রবিন
আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার ৪ নম্বর আসামি মেহেদী হাসান রবিন ( ফাইল ফটো )

শিবির সংশ্লিষ্টতার দোহাই দিয়ে বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে প্রথমিকভাবে যে ১৯ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা করা হয়েছে তাদের মধ্যে ৪ নম্বর আসামি মেহেদী হাসান রবিন (২২)।

আসামি রবিন বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হলেও তিনি জামায়াত-শিবির পরিবারের সন্তান বলে অভিযোগ উঠেছে। তিনি রাজশাহীর পবা উপজেলার পূর্ব কাপাসিয়া এলাকার স্কুল শিক্ষক মাকসুদ আলীর একমাত্র ছেলে।

সরেজমিনে রবিনের বাড়ি পূর্ব কাপাশিয়া এলাকায় গিয়ে জানা যায়, তার দাদা ও চাচা দুজনেই জামায়াত-শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। রবিনের দাদা মমতাজ উদ্দিন ছিলেন জামায়াত নেতা। জামায়াতের প্রার্থী হয়ে অংশ নিয়েছিলেন স্থানীয় নির্বাচনে।

আত্মগোপনে থাকা ছোট চাচা ইমরান আলীও শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তার বিরুদ্ধে রয়েছে নাশকতার মামলা। আর রবিনের স্কুল শিক্ষক বাবা মাকসুদ আলী বর্তমানে ওয়ার্ড পর্যায়ের আওয়ামী লীগ নেতা। বিএনপি-জামায়াতের ক্ষমতার পালাবদলের পর তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে নিজেকে জড়ান। আর এলাকায় রাজনীতির সঙ্গে জড়িত না থাকলেও বুয়েটে ভর্তির পর রবিন নাম লেখান ছাত্রলীগের রাজনীতিতে।

রবিনের বাবা মাকসুদ আলী জানান, রবিনের চাচার নামে এখনো স্থানীয় থানায় চার থেকে পাঁচটি নাশকতার মামলা রয়েছে। আর রবিনের দাদা জামায়াতের সমর্থন নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য নির্বাচনে একবার ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাতে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ হত্যার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে মেহেদী হাসান রবিনসহ বুয়েট ছাত্রলীগের ১১ জনকে বহিষ্কার করা হয়।

ওডি/এসএএফ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড