• রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দাখিল পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত দুই শিক্ষক গ্রেফতার

  যশোর প্রতিনিধি

০৮ অক্টোবর ২০১৯, ২২:২৬
গ্রেফতার
গ্রেফতারকৃত শিক্ষক তরিকুল ইসলাম (বামে) ও আসামি নজরুল ইসলাম (ডানে) (ছবি : দৈনিক অধিকার)

যশোরের মণিরামপুর উপজেলার ঝাপার এলাকার দাখিল পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার দুই আসামি শিক্ষক তরিকুল ইসলাম ও নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

গ্রেফতারকৃত তরিকুল ইসলাম মণিরামপুর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা খানপুর গ্রামের মোন্তাজের ছেলে ও অপর শিক্ষক নজরুল ইসলাম একই উপজেলার ঝাঁপা গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে।

সোমবার (৭ অক্টোবর) বিকালে খুলনার ডুমুরিয়া বাজার থেকে নজরুল ইসলাম এবং মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকালে যশোরের সদর উপজেলার চাঁচড়া এলাকা থেকে তরিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে যশোরের সহকারী পুলিশ সুপার (মণিরামপুর সার্কেল) রাকিব হাসান জানান, ধর্ষণের ঘটনার পর থেকে শিক্ষক তরিকুল ইসলাম ও নজরুল ইসলাম পলাতক ছিল। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সোমবার বিকালে খুলনার ডুমুরিয়া বাজার থেকে নজরুল ইসলাম এবং মঙ্গলবার বিকালে যশোরের সদর উপজেলার চাঁচড়া এলাকা থেকে তরিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৩০ সেপ্টেম্বর ওই পরীক্ষার্থীকে কোচিং ক্লাস করার এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাথরুমের পাশে বাঁশবাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে আসে অভিযুক্ত ওই দুই শিক্ষক। পরে ওই রাতেই তাকে যশোর শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর গত বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) ওই পরীক্ষার্থী বাড়িতে ফিরে গেলে বিষয়টি ফাঁস হয়। এ ঘটনার জেরে ওইদিন সকালে মাদ্রাসার সহপাঠীসহ ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী তরিকুল ইসলামকে গণধোলাই দিয়ে আটকে রাখে। পরে কৌশলে সে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে এ ঘটনায় পরীক্ষার্থীর বাবা ওই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড