• রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

স্বামীর আত্মহত্যার তিন দিন পর পুকুরে নিখোঁজ স্ত্রীর লাশ

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৪৯
গৃহবধূ
নিহত গৃহবধূ সামতি রাণী (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ঠাকুরগাঁওয়ে ইঁদুর মারা বিষ খেয়ে স্বামীর আত্মহত্যার পর এবার তিন দিন ধরে নিখোঁজ থাকা স্ত্রী সামতি রাণীর (২০) মরদেহ পুকুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

নিহত গৃহবধূ সামতি রাণী বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের বিলাশ পালের স্ত্রী ও পার্শ্ববর্তী গ্রামের ভেলটু পালের মেয়ে।

সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের জগেশ মাস্টারের পুকুর থেকে তার মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। 

স্থানীয়দের বরাতে বালিয়াডাঙ্গী থানার উপপরিদর্শক ইহাসাক আলী জানান, গত ২৭ সেপ্টেম্বর ভোরবেলা স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে ওই গৃহবধূর স্বামী বিলাশ পাল ইঁদুর মারার বিষ (গ্যাস ট্যাবলেট) খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এ সময় পরিবার লোকজন তাকে উদ্ধার করে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার জ্ঞান ফিরলে সে জানায়, সবাইকে ভয় দেখানোর জন্য এ কাজ করেছেন তিনি। কিন্তু পরবর্তীতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। 

উপপরিদর্শক ইহাসাক আলী বলেন, স্বামীর মরদেহ সৎকার করার পর ২৮ সেপ্টেম্বর ভোররাতে নিখোঁজ হয় গৃহবধূ সামতি রাণী। এরপর সোমবার সন্ধ্যায় তার লাশ স্থানীয় জগেশ মাস্টারের পুকুরে ভাসতে দেখে থানায় খবর দেয় স্থানীয়রা।

এ ব্যাপারে আমজানখোর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আকালু জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্বামীর শোক সইতে না পেরে পানিতে ডুবে আত্মহত্যা করেছে ওই গৃহবধূ। দুইদিন ধরে বৃষ্টির কারণে মরদেহ দেখা যায়নি। বিকালে আকাশ পরিষ্কার হলে গৃহবধূর মরদেহ স্থানীয়দের চোখে পড়ে। 

তবে, নিহত গৃহবধূর বাবা ভেলটু পাল ও তার পরিবারের লোকজনের অভিযোগ, মেয়েকে হত্যার পর পুকুরে ফেলে দিয়েছে গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ির লোকজন। 

এ ব্যাপারে বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি মোসাব্বেরুল হক জানান, এর আগে গৃহবধূর স্বামীর আত্মহত্যার বিষয়টি গোপন করেছে ওই পরিবারের লোকজন। চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় মরদেহের সৎকার করার পর আমরা খবর পেয়েছি। তবে, স্বামীর মৃত্যুর পর নিখোঁজের বিষয়ে থানায় জানিয়েছিল নিহত ওই গৃহবধূর বাবার বাড়ির লোকজন। 

তিনি বলেন, গৃহবধূর মরদেহটি পুকুর থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) সকালে ময়না তদন্তের জন্য মরদেহটি ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। এ সময় পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। 

এর আগে একই উপজেলায় মিজানুর রহমান (২৩) নামে অনার্স ৪র্থ বর্ষে পড়ুয়া এক কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। একটি মুদি দোকান থেকে লাশটি উদ্ধারের পর মর্গে প্রেরণ করে পুলিশ। তবে, কলেজছাত্রের মৃত্যুর সঠিক কারণ কেউ বলতে পারেনি। ফলে, এ নিয়ে এক রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড