• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

স্বামী ও শাশুড়ির পৈশাচিক নির্যাতনে হাসপাতালে গৃহবধূ 

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:২৯
গৃহবধূ
নির্যাতিত গৃহবধূ আফরোজা খাতুন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বিয়ের এক যুগ পরও যৌতুকের দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলায় স্বামী ও শাশুড়ির পৈশাচিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন আফরোজা খাতুন (৩০) নামে এক গৃহবধূ।

নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন পরিবারের লোকজন।

আফরোজা খাতুন সদর উপজেলার ইসলামনগর এলাকার হাসান জামিন রাজুর স্ত্রী ও একই উপজেলার হরিহরপুর এলাকার আতাউর রহমানের মেয়ে।

গৃহবধূর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে যৌতুকের জন্য আফরোজা খাতুনকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে তার স্বামী হাসান জামিন রাজু। পরে আফরোজার বাবা-মা ঘটনার খবর পেয়ে শ্বশুর বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করে আহতাবস্থায় ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়। বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ভুক্তভোগী গৃহবধূর বাবা আতাউর রহমান জানান, প্রায় এক যুগ আগে উপজেলার ইসলামনগর এলাকার হাসান জামিন রাজুর সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে মেয়ের বিয়ে দেন তিনি। ফুটফুটে একটি সন্তানও হয়েছে তাদের দাম্পত্য জীবনে। তবে, প্রায় সময়ই যৌতুকের দাবিতে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হতেন তার মেয়ে। কখনো স্বামীর দ্বারা আবার কখনো শাশুড়ির। এক পর্যায়ে গত মাসে এমন অভিযোগ এনে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে আফরোজা। কিন্তু সংসারের কথা চিন্তা করে স্বামীকে আদালত থেকে জামিন করিয়ে পুনরায় তার সঙ্গে নতুন করে ঘর বাঁধার স্বপ্ন দেখে সে। কিন্তু এবার তার ওপর অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যায়।

যৌতুকের দাবিতে পায়ে গরম পানি ঢেলে নির্যাতন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নির্যাতিত গৃহবধূ আফরোজা বলেন, বিয়ের ১২ বছর অতিবাহিত হতে চলেছে তারপরও আমার ওপর যৌতুকের জন্য নির্যাতন বন্ধ হয়নি স্বামী হাসান জামিন রাজুর। এরই জেরে বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে আমার পায়ে গরম পানি ঢেলে দেওয়া হয়। আফরোজা অভিযোগ করে বলেন, আমার স্বামী আমাকে না জানিয়ে আরও একটি বিয়ে করেছে। যা কিছুদিন আগে আমি জানতে পেরেছি। এতকিছুর পর সুস্থভাবে বেঁচে থাকা ও সংসার করা কীভাবে সম্ভব? আমি আমার স্বামী ও শাশুড়ির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ দিকে, আফরোজার স্বামী হাসান জামিন রাজুর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন। এমনকি দ্বিতীয় বিয়ের কথাও অস্বীকার করে তিনি বলেন, আমি কোনো দ্বিতীয় বিয়ে করিনি। আমার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ মিথ্যা। আমাকে সন্দেহ করে সংসার নষ্ট করছে আমার স্ত্রী ও তার পরিবারের লোকজন।

এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আশিকুর রহমান জানান, এমন কোনো ঘটনার অভিযোগ এখন পর্যন্ত আমি পাইনি। তবে, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন সদর থানার ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড