• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

নরসিংদীতে ব্যবসায়ী নিহতের জেরে কিশোর মৃত্যুশয্যায়

  নরসিংদী প্রতিনিধি

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:২৪
মৃত্যুশয্যায় কিশোর প্রবাল
মৃত্যুশয্যায় কিশোর প্রবাল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নরসিংদীতে প্রতিপক্ষের হামলায় রহুল আমিন (২২) নামে এক রং ব্যবসায়ী নিহতের ঘটনার জেরে পাল্টা হামলায় প্রবাল নামে এক কিশোর গুরুতর আহত হয়েছে। আহত প্রবালকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অস্ত্রোপচার শেষে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

গত বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নিহত রুহুল আমিনের ছোট ভাই আল আমিনের নেতৃত্বে ব্রাহ্মন্দী মহল্লার ছোটনের বাড়িতে পাল্টা এই হামলা চালানো হয়। এ সময় ছোটনের খালাতো ভাই কিশোর প্রবালের ওপর হামলা করা হলে সে গুরুতর আহত হয়।

আহত কিশোর প্রবালের পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, রহুল আমিন হত্যার পর একদল হামলাকারী ব্রাহ্মন্দী মহল্লাস্থ ছোটনের বাড়ি ঘরে ভাঙচুর চালিয়ে ব্যাপক তাণ্ডব সৃষ্টি করে। এ সময় ছোটনের খালাত ভাই স্কুলছাত্র প্রবাল হট্টগোল দেখে এগিয়ে গেলে তার মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে প্রবাল অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

হামলকারীরা চলে যাওয়ার পর আশেপাশের লোকজন কিশোর প্রবালকে উদ্ধার করে নরসিংদীর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ায় জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

এ দিকে রহুল আমিন হত্যার ঘটনায় তার বড় ভাই শরীফুল ইসলাম বাদী হয়ে সাতজনকে আসামি করে সদর মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

প্রবালের বাবা অবসরপ্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা হাফিজ উদ্দিন দৈনিক অধিকারকে জানান, নিহত রুহুলের ভাই আলামিন হাতুড়ি দিয়ে প্রবালের মাথায় জোরে আঘাত করার ফলে তার মাথার খুলি ফেটে মস্তিষ্কে আঘাত লেগেছে। এছাড়া দীর্ঘক্ষণ রক্তক্ষরণ হওয়ায় এখন সে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অস্ত্রোপচার শেষে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে। তার অবস্থা এখনো আশঙ্কামুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

প্রবালকে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় নরসিংদী সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান তার বাবা হাফিজ উদ্দিন।

এ দিকে রুহুল আমিন হত্যার ঘটনায় তার বড় ভাই শরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামিরা হলেন- বৌয়াকুড় মহল্লার বাসিন্দা ও ডিস ব্যবসায়ী সারোয়ার হোসেন (৫৫), তার দুই ছেলে তানভীর (২৮) ও তানজীল (২৪), এবং পশ্চিম ব্রাহ্মন্দী মহল্লার আকবরের ছেলে ছোটন (৩৪), দাসপাড়া এলাকার মনির (২৮), বৌয়াকুড় মহল্লার নয়ন (২৩) ও পশ্চিম ব্রাহ্মন্দী মহল্লার হৃদয় (২৩)।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, রহুল আমিন হত্যার ঘটনায় সাত জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। এর মধ্যে সারোয়ার হোসেন নামে একজন আসামি গ্রেফতার হয়েছে। আর পাল্টা হামলায় আহতের ঘটনায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

ওডি/ এফইউ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড