• শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রকৌশলীকে পিস্তল ঠেকানোর অভিযোগ অস্বীকার করলেন সেই ঠিকাদার

  নাটোর প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৩৮
মো: শাহরিয়াজ
রাস্তা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ। (ছবি : নিজস্ব)

নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগে নাটোরের বাগাতিপাড়ার সেই রাস্তা পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ। এ সময় রুয়েট থেকে টেস্ট না আসা পর্যন্ত কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

তবে সহকারী প্রকৌশলী লিটন আহমেদ খানকে পিস্তল ঠেকিয়ে কোনো ভয়-ভীতি দেখানো হয়নি বলে দাবি করেছেন ঠিকাদার আশফাকুল ইসলাম।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে আড়ানী-বাগাতিপাড়া সড়ক পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ। এ সময় তিনি স্থানীয়দের সাথে কাজের মান নিয়ে কথা বলেন।

এ সময় বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রিয়াংকা দেবী পাল, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সুবাস কুমার সাহা, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলী আফতাব হোসেনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলী আফতাব হোসেন বলেন, আড়ানী-বাগাতিপাড়া সড়ক নির্মাণ নিয়ে রুয়েট থেকে মৌখিকভাবে নিম্নমানের কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু আমরা সেটা বিশ্বাস করিনি। আপাতত কাজ বন্ধ রয়েছে, টেস্টের কাগজ আসার পরই আমরা আবার কাজ শুরু করব।

এ দিকে, ১২ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় ইউনাইটেড প্রেসক্লাবে আসেন ওই রাস্তার দুই ঠিকাদার আশফাকুল ইসলাম এবং সুজিত সরকার। এ সময় আশফাকুল ইসলাম রাগের মাথায় সহকারী প্রকৌশলীকে সাইডে আসলে হাত পা ভেঙে দেওয়ার কথা স্বীকার করেন।

তবে সহকারী প্রকৌশলী লিটন আহমেদ খানকে পিস্তল ঠেকিয়ে কোনো ভয় দেখানো হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।

ঠিকাদার আশফাকুল ইসলাম বলেন, প্রাইম কোট না করার কারণে প্রতিদিন তার ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা ক্ষতি হচ্ছে। রাস্তার প্রাইম কোট করা নিয়েই মূলত সহকারী প্রকৌশলীর সাথে কথা কাটাকাটি হয়েছে। কিন্তু সহকারী প্রকৌশলী অপপ্রচার চালিয়ে আমার সুনাম ক্ষুণ্ণ করেছে। এজন্য আমরা কাজ বন্ধ রেখেছি। এছাড়া ১১ সেপ্টেম্বরের প্রকৃত ঘটনা উল্লেখ করে আমরা সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবার একটা অভিযোগ করেছি। বিষয়টি সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আমরা কাজ করব না।

উল্লেখ্য, বাঘার আড়ানী এবং বাগাতিপাড়া উপজেলায় সরাসরি সড়ক যোগাযোগের জন্য ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে সাড়ে ৬ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ করছে নাটোর সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর। এই কাজটি করছেন নাটোরে ঠিকাদার আশফাকুল ইসলাম ও সুজিত সরকার।

কিন্তু গত ১০ সেপ্টেম্বর বিকাল সোয়া ৫টার দিকে ওই সড়কে প্রাইম কোট দেওয়া নিয়ে সহকারী প্রকৌশলী লিটন আহমেদ খানের সাথে ঠিকাদার আশফাকুল ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়।

এ সময় ঠিকাদার আশফাকুল ইসলাম প্রকৌশলীকে হাত পা ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দেন। এ সময় সহকারী প্রকৌশলীকে ঠিকাদারের লোকজন ধাওয়া দিলে প্রাণ ভয়ে পালিয়ে আসেন তিনি। পরে বিষয়টি সওজের ঊর্ধ্বতন এবং পুলিশ কর্তৃপক্ষকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এই ঘটনায় বাগাতিপাড়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন সহকারী প্রকৌশলী লিটন আহমেদ খান।

ওডি/এসএইচএস

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড