• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

বন্দুকযুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা নিহত

বন্দুকযুদ্ধ
ছবি: প্রতীকী

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বন্ধুক যুদ্ধে ছয় রোহিঙ্গা নিহত হলো।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর)  দিবাগত রাতে টেকনাফের হ্নীলা ইউপির জামিদুড়া চাইল্ড ফেন্ডলি স্পেস অফিসের পেছনের পাহাড়ে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি,বন্ধুকযুদ্ধে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। তারা হলেন- এএসআই কাজী সাইফ উদ্দিন, কনস্টেবল নাবিল ও রবিউল ইসলাম।

নিহতরা দুই রোহিঙ্গা টেকনাফ নিবন্ধিত নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। নেছার ডাকাত ও করিম ডাকাত নামে তারা পরিচিত ছিল। এছাড়া যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামীর তালিকায়ও তাদের নাম ছিল।

বন্ধুকযুদ্ধের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাস বলেন, ‘জাদিমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাইল্ড ফেন্ডলি স্পেস অফিসের পেছনে যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামিরা অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে– এমন  খবরের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি চালালে আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে সেখান ওই দুই রোহিঙ্গাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের উদ্ধার করে রোহিঙ্গা মাঝি ও স্থানীয়দের মাধ্যমে পরিচয় শনাক্ত করে টেকনাফ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার পাঠানো হয়। সেখানে তাদের মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।’

ওসি আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশীয় অস্ত্র, ৭ রাউন্ড শর্টগানের তাজা কার্তুজ ও  ৯ রাউন্ড কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত দুই রোহিঙ্গার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।’

ওডি/এমএমএ
 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড