• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

অল্পের জন্য রক্ষা পেল মেয়েটি

  যশোর প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:০৮
ফাতেমা আক্তার আতিয়া
পুলিশ হেফাজতে ফাতেমা আক্তার আতিয়া (ছবি: দৈনিক অধিকার)

অস্ত্রের মুখে চুয়াডাঙ্গা থেকে অপহৃত নবম শ্রেণির ছাত্রী নিজের বুদ্ধিমত্তায় উদ্ধার হয়েছে। ফাতেমা আক্তার আতিয়া নামের এ মেয়েটি বর্তমানে কোতয়ালী মডেল থানায় পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। 

ফাতেমা চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পলাশপাড়ার ব্র্যাকের কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেনের মেয়ে। ফাতেমা ঝিনুক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। 

অপহৃত ফাতেমা সাংবাদিকদের নিজের উদ্ধার হওয়ার কাহিনী বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকালে বাড়ি থেকে চাঁদবাড়িয়ায় কোচিং করার জন্য বের হই। পথিমধ্যে কয়েকজন যুবক অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে চোখ ও মুখ বেঁধে আমাকে একটি গাড়িতে তোলে। এরপর বাসে এবং পরে ট্রেনে তোলে।‘

অপহরণকারীরা ফাতেমাকে ভারতে পাচার করে দেওয়ার জন্য যশোরে নিয়ে যাচ্ছিল বলে জানান তিনি। ট্রেন থেকে নামার পর ফাতেমাকে নিয়ে রিকশায় করে একটি বাসস্ট্যান্ডে নিয়ে যায় তারা। স্ট্যান্ডে আসার পর ফাতেমা কৌশলে চোখের বাঁধন খুলে ফেলে। এরপর চিৎকার দেয় সে। ফাতেমার চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসলে অপহরণকারী চক্র পালিয়ে যায়।

এরপর যশোর নতুন বাস স্ট্যান্ডের লোকজন তাকে উদ্ধার করে জমাদ্দারপাড়া কমিউনিটি পুলিশের হাতে তুলে দেয়। কমিউনিটি পুলিশ বিস্তারিত শোনার পর কোতোয়ালী মডেল থানায় জানায়। এরপর এসআই শাহাজুল ইসলাম স্কুলছাত্রীকে কোতোয়ালী মডেল থানায় নিয়ে আসে।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সমীর কুমার সরকার এ ব্যাপারে বলেন, ‘স্কুলছাত্রী তাদের হেফাজতে রয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষ না হলে কিছুই বলা যাবে না।’

ওডি/এমএমএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড