• বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এক বছর পর হত্যা মামলার মূল হোতা গ্রেফতার

  বাগেরহাট প্রতিনিধি

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:৫১
গ্রেফতার
গ্রেফতারকৃত মো. বাবুল হাওলাদার (ছবি : দৈনিক অধিকার)

হত্যাকাণ্ডের এক বছর পর বাগেরহাটের রামপালে আনজিরা খাতুন হত্যা মামলার প্রধান আসামি মো. বাবুল হাওলাদারকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতার বাবুল হাওলাদার বাগেরহাট সদর উপজেলার বাদোখালী গ্রামের সিফাত উল্লাহ হাওলাদারের ছেলে।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকালে এক বিজ্ঞপ্তিতে সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন জেলা সিআইডির কর্মকর্তারা। এর আগে বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাগেরহাট জেলার ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (সিআইডি) মোংলা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বাগেরহাট সিআইডির উপপরিদর্শক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ২০১৮ সালের ১২ সেপ্টেম্বর রামপাল উপজেলার তালবুনিয়া গ্রামের আব্দুল হাকিম শেখের মেয়ে আনজিরা বেগমকে হত্যা করে বাদোখালি গ্রামের আনসার আলীর বাড়ির সামনের খালে ফেলে রেখে যায় মামলার আসামিরা। এর দুই দিন পরে পুলিশ নিহতের পরিচয় পায়। পরে সদর থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে একটি মামলা হয়। হত্যার রহস্য উদঘাটন ও হত্যাকারীদের গ্রেফতারে মামলাটি বাগেরহাট সিআইডর কাছে হস্তান্তর করা হয়। দীর্ঘ তদন্ত ও খোঁজ-খবর নিয়ে সিআইডি নিশ্চিত হয় হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বাবুল জড়িত।

তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের পরে বাবুল এলাকা থেকে পলাতক ছিল। কিছু দিন খুলনায়, কিছু দিন রামপাল ও কিছু দিন সুন্দরবনে আত্মগোপনে ছিল সে। বিশেষ অনুসন্ধানের মাধ্যমে বুধবার মোংলা থেকে তাকে গ্রেফতার করে সিআইডি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাবুল হত্যার কথা স্বীকার করেছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, হত্যাকাণ্ডে জড়িত অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড