• সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যুবলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে একজনকে কুপিয়ে হত্যা

  চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

২৩ আগস্ট ২০১৯, ২০:৫১
নিহত
নিহত নাইমুল ইসলাম পল্টু (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় যুবলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কর্মী নাইমুল ইসলাম পল্টুকে (৩৫) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আহত অপর একজনকে গুরুতর অবস্থায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে শিল্পনগরী দর্শনা রেল গেটে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত নাইমুল ইসলাম পল্টু দামুড়হুদা উপজেলার ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রউফের ছেলে। 

ঘটনার পর থেকে পুরো এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। এছাড়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বেশ কিছুদিন ধরে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনাতে যুবলীগের দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে শুক্রবার বিকালে মান্নান-তোতা-ছোট ও হেলাল-মঞ্জুর গ্রুপের সমর্থকেরা দর্শনা রেল গেটের কাছে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে মান্নান-তোতা-ছোট গ্রুপের নেতাকর্মীদের হামলায় ঘটনাস্থলেই নিহত হয় নাইমুল ইসলাম পল্টু। এ সময় গুরুতর আহত হয় মঞ্জুর আহম্মেদ নামে অপর এক নেতাকর্মী। পরে তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

তবে আহত যুবলীগ কর্মী মঞ্জুর আহম্মেদ দাবি করেছেন, ‘পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ধারালো অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান ছোট, দর্শনা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আসলাম উদ্দীন তোতা ও সহসাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নানের নেতৃত্বে ৬ থেকে ৭ জন আমাদের ওপর হামলা করে। এ সময় যুবলীগ কর্মী পল্টুকে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যা করা হয়। আমাকেও কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। 

দামুড়হুদা থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাহাঙ্গীর আলম জানান, নিজেদের মধ্যে অন্তর্কোন্দলে যুবলীগ কর্মী পল্টু খুন হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে তথ্য পেয়েছি। পুলিশ ইতোমধ্যেই হামলাকারীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে। এছাড়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দর্শনার বেশ কয়েকটি স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। 

এ দিকে, চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দার ও যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান এক বিবৃতিতে বলেছেন, দর্শনায় নিজেদের মধ্যে হামলায় নিহত নাইমুল ইসলাম পল্টু ও হামলাকারীরা কেউই যুবলীগের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয়। নিজেদের অপকর্ম ঢাকতে তারা যুবলীগের পদ-পদবী ব্যবহার করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন। 

উল্লেখ্য, দর্শনার একাধিক বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছে, মাদকের ব্যবসা নিয়ে ওই দুই গ্রুপের মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরেই বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে গত তিন মাস আগে দুই পক্ষ জড়িয়ে পড়েছিল গোলাগুলিতে। সে সময় কোনো হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও শুক্রবারের হামলায় প্রাণ হারাল যুবলীগ কর্মী নাইমুল ইসলাম পল্টু।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড