• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুরবানির ঈদে লাগামহীন মসলার বাজার

  শাহ্‌ মুহাম্মদ রুবেল, কক্সবাজার

১০ আগস্ট ২০১৯, ১৮:৫৯
মসলার বাজার
মসলার বাজার ( ছবি : দৈনিক অধিকার )

প্রতি বছর কুরবানি ঈদকে সামনে রেখে বাড়ে মসলার দাম। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। চাহিদার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে প্রতিটি মসলার দাম। খুচরা ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, পাইকার ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে দাম বাড়িয়ে থাকেন। সারা বছরের লাভ কুরবানি ঈদে উঠিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন ব্যবসায়ীরা।

শনিবার কক্সবাজারের বড় বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিকেজি লবঙ্গের দাম বেড়েছে ২৫০ টাকা, জিরা ৭০, এলাচ ২৫০, গোলমরিচ ২৫০, শুকনো মরিচ ২০ ও ধনে ২০ টাকা করে বেড়েছে। এছাড়া আদার দামও হু হু করে বাড়ছে। প্রতিকেজি আদায় বেড়েছে ২০-৩০ টাকা করে। রসুনেরও একই অবস্থা। প্রতিকেজিতে বেড়েছে ১০-১৫ টাকা। পেঁয়াজে বেড়েছে ১৫-২০ টাকা।

অনুসন্ধানে জানা যায়, কুরবানির ঈদে পেঁয়াজ, রসুন, আদা, দারুচিনি, এলাচ, জিরা, লবঙ্গ, তেজপাতা ও গোল মরিচের চাহিদা বেশি থাকে। ফলে এ সময়টাকে কাজে লাগিয়ে কিছু অসাধু মসলা আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা এসব মসলার দাম বাড়িয়ে বাজার অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করে।

বড় বাজা‌রের পাইকারি বিক্রেতা হাসান ইমাম বলেন, তেমন একটা দাম বা‌ড়েনি। ত‌বে এখন আর নতুন করে দাম বাড়ার সুযোগ নেই। দাম যা বাড়ার তা আগেই বেড়ে গেছে। 

আলী আহমেদ নামে এক ক্রেতা জানান, কুরবানির গরু কেনা হয়েছে এক মাস আগে। এখন মসলাটা কিন‌তে পার‌লেই জা‌মেলা শেষ হ‌বে। তাই মসলার বাজার ঘুরে ঘুরে প্রয়োজনীয় মসলা কিনে নিচ্ছি। 

তবে তিনি অভিযোগ করে আরও ব‌লেন, যে কোনো উৎসব উপলক্ষে বাজারে পণ্যের দাম বাড়বে- আমা‌দের দে‌শে এটা একটা স্থায়ী প্রবণতা হয়ে দাঁ‌ড়ি‌য়ে‌ছে। তবে উৎসবভেদে কিছু নির্দিষ্ট পণ্যের দাম আর সবকিছুকে ছাড়িয়ে যায়। ঈদুল আজহা‌কে কেন্দ্র ক‌রে মসলার দাম যেভা‌বে বেড়ে‌ছে সরকার এদিকটায় খেয়াল রাখ‌লে সবার জন্য ভা‌লো হয়।

ট্রেডিং করপোরেশনের (টিসিবি) হিসাব অনুযায়ী, দেশের মসলার মজুদের পরিমাণ চাহিদার তুলনায় অনেক বেশি। অন্যদিকে বৈধ পথের তুলনায় অবৈধ পথেই বেশি মসলা আমদানি হয়। অথচ চাহিদা বাড়ার কারণেই ভোক্তাদের অনেকটা জিম্মি করেই বেশি দামে মসলা বিক্রি করছেন পাইকারি ব্যবসায়ীরা।

তবে খুচরা বাজারে দাম বাড়ার ব্যাপারে দ্বিমত রয়েছে পাইকারি ব্যবসায়ীদের। তাদের দাবি, নতুন করে কোনো ধরনের মসলার দাম বাড়ানো হয়নি।

কক্সবাজার ব্যবসায়ী সমিতি ও গরম মসলা ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা আমদানিতে ও পাইকারি বাজারে দাম কিছুটা বাড়ার কথা স্বীকার করে বলেন, চাহিদা অনুযায়ী যথেষ্ট আমদানি হয়েছে। ঘাটতি পড়ার কোনো আশঙ্কা নেই। ঈদকে কেন্দ্র করে মসলার বাজারে কোনো সিন্ডিকেটের কথা তারা অস্বীকার করেন।

ওডি/এসএএফ 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড