• সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আবারও ‘ভিআইপির’ অপেক্ষায় ফেরি

  মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

১০ আগস্ট ২০১৯, ১৮:৫২
ফেরি
‘ভিআইপির’ অপেক্ষায় থাকা ফেরি ‘কর্ণফুলী’ ( ছবি : দৈনিক অধিকার)

মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটে যুগ্ম সচিবের অপেক্ষায় ফেরি না ছাড়ায় দুর্ঘটনায় আহত স্কুলছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়। ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়া আর কেউ ভিআইপি নন।’

ওই ঘটনার রেশ না কাটতেই শনিবার (১০ আগস্ট) সকাল ১১টার দিকে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে আবারও ‘ভিআইপি’ পারাপারের জন্য ঘাটে ‘কর্ণফুলী’ নামের একটি ফেরিকে আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে।

যাত্রী ও গাড়ি চালকরা জানান, ফেরিটিতে গাড়ি লোড না করে প্রায় এক ঘণ্টা দাঁড়িয়ে ছিল। তবে ফেরিটির চালক মনিরুজ্জামান মনির এ অভিযোগ অস্বীকার করে মুঠোফোনের সংযোগ কেটে দেন।

এ বিষয়ে শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক সাফায়েত আহমেদ জানান, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মোজাম্মেল হক খান দাপ্তরিক কাজে মাদারীপুরে যাচ্ছিলেন। তবে তার জন্য ১০ মিনিটের বেশি দেরি করা হয়নি। ওই সময় ছোট গাড়িগুলোকে রো-রো ফেরিতে দেওয়া হচ্ছিল। তার জন্য ফেরি আটকে রাখা হয়নি। সাফায়েত আহমেদ বলেন, দুদক কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান ও পুলিশের সাবেক আইজিপি শহিদুল হককে ভিআইপি হিসেবে নয়, ‘বিশেষ সম্মান’ দেখিয়ে তাদের গাড়ি আগে ফেরিতে ওঠানো হয়েছে। কর্ণফুলী ফেরিতে তাদের গাড়ির সঙ্গে অন্যান্য যানবাহনও ছিল।

তিনি আরও জানান, মন্ত্রণালয় থেকে শিমুলিয়া ঘাটের ৪ নম্বর ঘাটটি ‘ভিআইপি ঘাট’ নামকরণ করা হয়। তবে ইতোমধ্যে নাম পরিবর্তনের আবেদন করা হয়েছে।

শিমুলিয়া ঘাটের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মুরাদ জানান, দুদক কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান শিমুলিয়া ঘাট দিয়ে মাদারীপুরের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। তবে সেজন্য ফেরি আটকানো হয়নি। তিনি একটি ছোট ফেরিতে গিয়েছিলেন। ভিআইপি কেউ গেলে বিআইডব্লিউটিসি ফেরির ব্যবস্থা করে থাকে। চিঠি দিয়ে আগে জানানো হয়েছে। এটি তার দাপ্তরিক সফর।

ওডি/ এফইউ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড