• বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

থানচিতে ভারী বর্ষণে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

  থানচি প্রতিনিধি, বান্দরবান

১১ জুলাই ২০১৯, ১৯:০৯
বন্যা
ভারী বর্ষণে প্লাবিত থানচির নিম্নাঞ্চল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

টানা বৃষ্টি ও ভারী বর্ষণে শঙ্খ নদীসহ বিভিন্ন ঝরনার পানির বৃদ্ধির কারণে বান্দরবানের থানচি উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। ইতোমধ্যে থানচি উপজেলার সঙ্গে অন্যান্য জেলা উপজেলার সংযোগ সড়কের ৭-৮টি স্থানে পাহাড় ধসে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। 

উপজেলা প্রশাসন ও পরিষদের যৌথভাবে থানচি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও বলিবাজার উচ্চ বিদ্যালয় দুইটি আশ্রয় কেন্দ্রে খোলা রাখা হয়েছে। ওই সব আশ্রয় কেন্দ্রে চাল, ডাল, চিনি, যাবতীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছ । 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার (৬ জুলাই) থেকে বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) পর্যন্ত টানা ভারী বৃষ্টি, প্রবল বর্ষণে উপজেলা থানচি বাজারের শঙ্খ নদীর আশপাশে বসবাসরত প্রায় ৫শ পরিবার এবং বলিপাড়া ইউনিয়নের হিন্দু পাড়া বাগান পাড়া হাইলমারা পাড়াসহ কয়েকটি পাড়ায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

এ দিকে থানচি আলিকদম সড়কে পাহাড় ধসে সড়কের কয়েকটি স্থানে ব্লক সৃষ্টি হয়েছে। বান্দরবান থানচি সড়কে জীবননগর নামক স্থান থেকে বলিপাড়া বাজার পর্যন্ত প্রায় ৯ কিলোমিটার দূরত্বে কয়েকটি স্থানে পাহাড় ধসে সড়কের ব্লক হয়ে যাওয়ায় জেলা সদরের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

নিম্নাঞ্চল প্লাবিত ও বন্যা কবলিত এবং পাহাড় ধসে সড়কে পরিদর্শন ও সার্বক্ষণিক দুর্ঘটনা কবলিত পরিবার ও মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াইহ্লামং মারমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আরিফুল হক মৃদুল, সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাংসার ম্রো, থানচি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ, বলিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াঅং মারমা এবং থানচি জামে মসজিদের ইমাম মোল্লা আনিস হক মোবারক সকাল থেকে মসজিদে মাইকিং করছেন প্লাবিত স্থান থেকে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে। 

যোগাযোগ করা হলে সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাংসার ম্রো বলেন, আমার ইউনিয়নে শঙ্খ নদীর তীরবর্তী বসবাসরত ৫ শতাধিক পরিবার বন্যা কবলিত হয়েছে। বন্যা কবলিত পরিবারের স্বজনদের আশ্রয় কেন্দ্রে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, থানচি সদর থেকে হাসপাতালে যাওয়ার পথে একটি কালভার্ট সেতু ডুবে গেছে তাই সেখানে নৌকার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। 

তিনি আরও বলেন, থানচি উপজেলা সদরে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ তারিকুল রহমান ও তার কার্যালয়ের সকল কর্মচারীদের নির্দেশ দিয়েছি আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে শুকনো খাওয়ার ও বিশুদ্ধ পানিসহ খাদ্য সামগ্রী দিয়ে যাওয়ার কথা। 

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ তারিকুল রহমান বলেন, বলিপাড়া ইউনিয়নে উচ্চ বিদ্যালয়ের আশ্রয় নেওয়ার শতাধিক পরিবারের মধ্যে শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানিসহ সকল প্রকার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড