• শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রকাশ্যে কোপালো সন্ত্রাসীরা, একাই লড়লেন স্ত্রী

  অধিকার ডেস্ক

২৭ জুন ২০১৯, ০১:৫২
হামলা
সন্ত্রাসীদের নির্বৃত্তের চেষ্টা করছেন আয়েশা (ছবি : সংগৃহীত)

দুই মাস আগে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন বরগুনা শহরের রিফাত শরীফ ও আয়েশা আক্তার। বিয়ের পর পরই এক তরুণ দাবি করে সদ্য বিবাহিত মেয়েটি তার সাবেক স্ত্রী। এ নিয়ে ঐ তরুণ ও আয়েশার স্বামীর মধ্যে সৃষ্টি হয় দ্বন্দ্বের। এক পর্যায়ে নয়ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি পোস্ট করে।

এতে করে নয়নের সঙ্গে রিফাতের দ্বন্দ্ব বেড়ে যায়। আয়েশাকে উত্ত্যক্ত করার কারণে রিফাত তাকে কলেজে নিয়ে যেত। ঐ দ্বন্দ্বের জেরে বুধবার (২৬ জুন) সকালে নয়ন তার দুই সহযোগীকে নিয়ে রিফাতের ওপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়। আশেপাশে মানুষ থাকলেও রিফাতকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন তার স্ত্রী আয়েশা আক্তার। আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়েও হামলা থেকে স্বামীকে পুরোপুরি রক্ষা করতে পারেননি। 

নৃশংস হামলায় নিহত হয়েছেন রিফাত শরীফ (২২)। বুধবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনার কলেজ সড়কের ক্যালিক্স কিন্ডার গার্টেনের সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। নিহত রিফাত শরীফ সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের দুলাল শরীফের ছেলে। অভিযুক্তদের মধ্যে নয়ন ও তার এক সহযোগী রিফাত ফরাজীর নাম জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে সাড়ে ১০টার দিকে রিফাত তাঁর স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকাকে বরগুনা সরকারি কলেজে নিয়ে যান। কলেজ থেকে ফেরার পথে মূল ফটকের সামনে নয়ন, রিফাত ফরাজীসহ আরও দুই যুবক অতর্কিতে রিফাতের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তাঁরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে রিফাতকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। 

রিফাতের স্ত্রী আয়েশা দুর্বৃত্তদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু কিছুতেই হামলাকারীদের থামাতে পারেন নি। তাঁরা রিফাতকে উপর্যুপরি কুপিয়ে রক্তাক্ত করে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন ও আয়েশা রিফাতকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রিফাতের বুকে, ঘাড়ে ও পিঠে গুরুতর আঘাত থাকায় প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল।

অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সেখান থেকে তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। রিফাতের লাশ হাসপাতালের মর্গে আছে। বৃহস্পতিবার ময়না তদন্ত শেষে লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে বরগুনার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবির মোহাম্মাদ হোসেন বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে তাদের বাসাসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়েছে। শীঘ্রই অভিযুক্তদের আটক করা হবে। তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

ওডি/এমএ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড