• শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

অবশেষে হালদায় ডিম ছাড়ল মা মাছ

  অধিকার ডেস্ক

২৬ মে ২০১৯, ০৬:৪০
হালদায় সংগ্রহ করা মাছের ডিম
হালদায় সংগ্রহ করা মাছের ডিম (ছবি : সংগৃহীত)

দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র চট্টগ্রামের হালদা নদীতে অবশেষে ডিম ছেড়েছে মা মাছ। নদীতে রুই জাতীয় (রুই, কাতাল, মৃগেল ও কালিবাইশ) মা মাছ ডিম ছেড়েছে।

সাধারণত, চৈত্র ও বৈশাখ মাসে প্রবল বর্ষণ হলে মা মাছ ডিম ছাড়ে। কিন্তু এবার বৃষ্টির পরিমাণ কম থাকায় ঢলের প্রকোপ হয়নি। বৈশাখ মাসের মাঝামাঝিতে নদীতে মা মাছ অল্প ডিম ছেড়েছিল।

শনিবার (২৫ মে) সকাল থেকে হাটহাজারী ও রাউজান উপজেলা সংলগ্ন নদীর বিস্তীর্ণ অংশের বিভিন্ন স্থানে মা মাছ নমুনা ডিম ছাড়লেও রাত সাড়ে ৯টার পর থেকে হালদা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে ডিম পাওয়ার খবর আসতে থাকে। 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরির সমন্বয়ক ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া ও হাটহাজারী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন মা-মাছের ডিম ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শনিবার সারাদিন হাটহাজারী ও রাউজান অংশের হালদা নদীর বিভিন্ন ঘাটে নমুনা ডিম পাওয়া গেছে। রাত সাড়ে ৯ টার দিকে আস্তে আস্তে নদীর আজিমের ঘাট, অঙ্কুরীঘোনা, মদুনাঘাট, বাড়িয়াঘোনা, মাছুয়াঘোনা হাট, সিপাহীর ঘাট, গড়দুয়ারা এলাকায় ডিম সংগ্রহকারীরা ভালোভাবে ডিম পাওয়ার খবর দিতে থাকেন। 

তারা আরও জানা, প্রায় ৪০০ ডিম সংগ্রহকারী ডিম সংগ্রহ করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন নদীতে। তারা প্রথম তিন-চার ঘণ্টায় প্রত্যেকে ২০-২৫ কেজি করে ডিম সংগ্রহ করেছেন।

এবার নিয়মিত অভিযান চালিয়ে মা মাছ সংরক্ষণ, ডিম থেকে রেণু তৈরির কুয়া সংস্কার, কুয়ায় নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থাসহ নানা উদ্যোগের কারণে হালদায় ডিম সংগ্রহের পরিমাণ এবার অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যেতে পারে।

ওডি/এসএস 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড