• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

বগুড়ায় লটারি জুয়া : লোভে নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে পরিবারগুলো

  বগুড়া প্রতিনিধি

২৪ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৬
বগুড়া
অবৈধ লটারি বাণিজ্য

মাথায় খারাপ মামা। যদি লাইগা যায়। আরও কত্তসব আকর্ষণীয় কথার ফুলঝুড়ি। মুহূর্তেই গলে যায় গ্রামের গরিব মানুষেরা। বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামের পাশেই বীর মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ উদ্দিন স্টেডিয়ামে জমে উঠেছে অবৈধ লটারি বাণিজ্য। নাম দেয়া হয়েছে “স্বপ্নছোঁয়া” আসলে স্বপ্ন ছোঁয়ার কথা বলে স্বপ্ন ভেঙে দিচ্ছে এই লটারি। 

বগুড়া শহরের প্রত্যেক প্রত্যন্ত গ্রামে গ্রামে সিএনজি, ব্যাটারি চালিত রিকশায়, তিন মাথা বাসস্ট্যান্ড, চারমাথা বাসস্ট্যান্ড, মাটিডালি বিমান মোড়সহ বিভিন্ন পয়েন্টে ভাগ্য যাচাইয়ের নামে হাজার হাজার টিকিট বিক্রি করে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। মূলত সকল নৈতিকতার পরিপন্থি বিবেক বর্জিত মানসিকতায় লালিত একটি স্বার্থান্বেষী মহল শুধুমাত্র আর্থিক লাভের আশায় বগুড়ার প্রশাসনকে ব্যবহার করে প্রকাশ্য দিবালোকে দেদারছে চলছে জুয়া, হাউজি, র‌্যাফেল ড্র লটারি। 

আইনি অনুমোদন না, থাকলেও শুধুমাত্র রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক প্রভাবকে কাজে লাগিয়ে চিহ্নিত এই চক্রটি আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলাকে ব্যবহার করে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হচ্ছে। ফলে, বগুড়ার জনসাধারণ নিঃস্ব হলেও, নির্বাক প্রশাসন। 

লোভনীয় আর চাটুকার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে লটারি টিকিট বিক্রির মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে কোটি কোটি টাকা।

উল্লেখ্য, কয়েকটি জাতীয় পত্রিকা এবং স্থানীয় পত্রিকায় খবর প্রকাশের পর বাণিজ্য মেলার কর্তৃপক্ষ একটু কৌশল বদলিয়েছেন, হঠাৎ ২/১ দিন বন্ধ রাখে। যেন সবাই বুঝতে পারে লটারি বন্ধ হয়ে গেছে। তারপর আবার চলে স্বাভাবিক।

লটারি কেটে নিঃস্ব পরিবারের এক সদস্য জানান, আমি প্রথমে ১টা লটারই কাটি। ধীরে ধীরে মনে খুব লোভ কাজ করছিল। আমি যেখান থেকে টাকা পেতাম সেখান থেকে টাকা সংগ্রহ করেই লটারি টিকিট কিনতাম। বাবার পকেট থেকে চুরি করতাম টাকা।

সমিতি থেকে লোন নিতাম লোনের টাকা দিয়ে লটারির টিকিট কিনতাম, ভাগ্য যাচাইয়ের আশায়। এদিকে আমার পরিবার নিঃস্ব। ফলে, গত ১ মাসে হঠাৎ করেই বগুড়ায় বেড়েছে চুরি, ছিনতাই এবং আত্মহত্যা।

মেলাটি পরিচালনা করছে দুটি প্রতিষ্ঠান। বগুড়া চেম্বার অব কমার্স অপরটি মেসার্স শুকরা এন্টারপ্রাইজ।

এ বিষয়ে মেসার্স শুকরা এন্টারপ্রাইজের পরিচালক, আব্দুল মান্নান আকন্দ জানান, মেলার খরচ চালানোর জন্য লটারির টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড