• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬  |   ৩৫ °সে
  • বেটা ভার্সন

নোয়াখালীতে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি

  আরিফ সবুজ, নোয়াখালী প্রতিনিধি ২৪ মার্চ ২০১৯, ১৮:০৩

নোয়াখালী
সবজি বিক্রেতা

নোয়াখালীর বিভিন্ন হাট-বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বেড়েছে হুট করে। যার ফলে নিম্ন বা মধ্যবিত্ত পরিবারগুলো পড়েছে নানা বিপাকে। দোকানদারদের দাবি গ্রীষ্মকালীন শাক-সবজির আগমন কমে যাওয়ার ফলে দাম বেড়েছে শাক-সবজিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের।

গতকাল (২৩ মার্চ) দুপুরের পর জেলার ব্যস্ততম বাণিজ্যিকস্থল মাইজদী পৌরসভা বাজারে গিয়ে কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, গত সপ্তাহের তুলনায় দাম বেড়েছে অনেক পণ্যের। তারা জানান, বর্তমানে প্রতি কেজি মুরগির দাম ১৭০-১৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে তবে গত সপ্তাহে এটি প্রতি কেজি ১৫০-১৬৫ টাকা এবং লেয়ার মুরগি বিক্রি হয়েছে ২৩০ টাকা কেজি যা এখন ২৫০ টাকা প্রতি কেজি।

রিয়াজ উদ্দিন নামে একজন ক্রেতা জানান, সবুজ মরিচ বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকায় যা গত সপ্তাহে ছিল ৬০-৭০ টাকা। সবুজ মরিচ সবচেয়ে অপরিহার্য পণ্যগুলোর মধ্যে একটি, জেলার সকল বাজারে উল্লেখযোগ্য দাম বৃদ্ধি পেয়েছে এ মরিচের । এই মরিচ কেনার সামর্থ্য কম আয়ের লোকেদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে বলে মনে করেন তিনি। তিনি বলেন, ভোক্তা অধিকার বিভাগের নজরদারি থাকলে স্থানীয় বাজারগুলোতে এমন অপ্রতিরোধ্য মূল্য বাড়তো না ।

এছাড়াও বাজারে গিয়ে দেখা যায় ১ কেজি দেশি পেঁয়াজ ৩০ থেকে ৩৫ টাকা এবং ভারতীয় পেঁয়াজ ২০ থেকে ২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। যা গত সপ্তাহের তুলনায় প্রতি কেজিতে দাম বেড়েছে ৫ থেকে ১০ টাকা।

এদিকে বাজারের বিভিন্ন প্রকারের সবজিরও দাম বেড়েছে, যা সাধারণ মানুষের, বিশেষত নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য বড় অসুবিধা সৃষ্টি করেছে।

অন্যদিকে হাঁসের ডিমের হালি (৪টি) বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকায়, যা কয়েকদিন আগে ছিল সর্বোচ্চ ৪০ টাকা হালি। এছাড়াও গরুর মাংস ৫৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে আর মাছের দাম রয়েছে অপরিবর্তিত।

ব্যবসায়ী জানান, শীতের সবজি প্রায় স্থানীয় বাজারে অদৃশ্য হয়ে গেছে, এ কারণে বাজারের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বেড়ে গেছে।

করিমুল্লাহ নামে একজন সবজি বিক্রেতা জানান, গত মাসের তুলনায় এ মাসে সবজি আসছে কম, আমরা যে হারে কৃষকদের থেকে ক্রয় করি সে হারে বিক্রি করি। তিনি আরও জানান, শীতকালীন সবজির আগমন কমে গেছে প্রায়।

তবে ক্রেতাদের অভিযোগ পাইকারি বিক্রেতারা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যগুলোর দাম বাড়ানোর জন্য দায়ী। তারা অসাধু উপায়ে বিভিন্ন কায়দায় বারবার দাম বাড়ায়। এ বিষয়ে নোয়াখালীর ভোক্তা অধিকার বিভাগের সহকারী পরিচালক দেবনানন্দ সিংয়ের সাথে যোগাযোগ করা হলে এ সময় তিনি বলন, এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ও ব্যবসায়ীদের জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে, সেখানে সম্ভাব্য বাজার পর্যবেক্ষণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড