• সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

ফেলানী হত্যা রিটের দ্রুত নিষ্পত্তি চাইলেন কিরীটি রায়

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ২০ মার্চ ২০১৯, ২১:১৮

ফেলানী
কোলকাতাস্থ বাংলার মানবাধিকার সুরক্ষা মঞ্চের সম্পাদক কিরীটি রায়ের সঙ্গে বৈঠককালে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

কুড়িগ্রামের বহুল আলোচিত ফেলানী হত্যাকে কেন্দ্র ভারতের সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করা রিটের শুনানি দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে আছে। ন্যায় বিচারের স্বার্থে এবং সীমান্ত হত্যা বন্ধে দিক নির্দেশনা দিতে এই রিটের শুনানি এবং নিষ্পত্তি দ্রুত হওয়া দরকার বলে দাবি করছেন রিটের আবেদনকারী ও ভারতের কোলকাতাস্থ বাংলার মানবাধিকার সুরক্ষা মঞ্চের (মাসুম) সম্পাদক কিরীটি রায়।  
      
বুধবার (২০ মার্চ) বিকালে কুড়িগ্রাম জেলা শহরের ব্যাপারী পাড়া এলাকায় অবস্থিত উত্তরবঙ্গ জাদুঘর চত্বরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ কালে তিনি এ দাবি জানান। এ সময় রিটের অপর আবেদনকারী ফেলানীর বাবা নুর ইসলাম ও রিটের হলফ নামায় স্বাক্ষরকারী কুড়িগ্রামের পাবলিক প্রসিকিউটর এস এম আব্রাহাম লিংকন উপস্থিত ছিলেন।

মাসুম সম্পাদক কিরীটি রায় বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রায় ৪ হাজার কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। সেখানে হিংসা, নিত্য খুন এবং মানুষের ওপর যে নির্যাতন করা হয় তা কি করে বন্ধ করা যায়, যেটি মূলত ভারতের বিএসএফ করে যাচ্ছে। আর দুই দেশের কারাগার গুলোতে প্রচুর মানুষ সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও দীর্ঘদিন বিনা বিচারে আটক থাকছে। এগুলো কিভাবে বন্ধ করা যায় সে ব্যাপারে দুই দেশের সুশীল সমাজ কিভাবে এগিয়ে আসতে পারেন সে বিষয়ে আলোচনার জন্য রবিবার (১৭ মার্চ) তিনি বাংলাদেশে এসেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার (২০ মার্চ) কুড়িগ্রামে এসেছেন।  

তিনি আরও বলেন, সীমান্ত ঘটনার সবচেয়ে বড় উদাহরণ হচ্ছে ফেলানী খাতুন। যাকে নিরস্ত্র অবস্থায় হত্যা করা হয়েছে। যার ন্যায্য বিচার চেয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে রিট আবেদন দাখিল করা হয়েছে। সেই মামলায় সব পক্ষ এফিডেভিটসহ তাদের জবাব দাখিল করেছেন। তারপরও রিটার্ন পূর্ণ শুনানি হচ্ছে না। আমরা শুধু অপেক্ষা করে যাচ্ছি। এছাড়া আর করার কিছুই নেই। আর ন্যায্য বিচার যদি দ্রুত না হয়, তাহলে তা অবিচারের নামান্তর বলতে চাই।

এ প্রসঙ্গে কুড়িগ্রামের পাবলিক প্রসিকিউটর এস এম আব্রাহাম লিংকন বলেন, দ্রুত শুনানি শেষে রিটের নিষ্পত্তি হলে তাতে যে নির্দেশনা থাকবে তাতে দুই দেশের সীমান্ত ব্যবস্থাপনায় একটি মাইল ফলক হবে বলে প্রত্যাশা করছি। 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড