• বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

৩য় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষককে ধরিয়ে দিল জনতা

  ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

১৯ মার্চ ২০১৯, ২০:৪২
ময়মনসিংহ
ছবি : নিজস্ব (প্রতীকী)

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে হালকায়ে জিকিরের মাহফিল থেকে এক ৩য় শ্রেণির ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন নয়ন মিয়া (৩৫)। সে গৌরীপুর উপজেলার ৫ নম্বর সহনাটি ইউনিয়নের ভালুকাপুর গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে। শাহিন মিয়া (৩২) একই গ্রামের মৃত আব্দুল মন্নাসের ছেলে।

ঘটনাটি ঘটে সোমবার (১৮ মার্চ) দিবাগত রাতে উপজেলার ৫ নম্বর সহনাটি ইউনিয়নের ভালুকাপুর গ্রামে। 

পরে আজ মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকালে স্থানীয় জনতা নয়ন মিয়াকে ধরে পুলিশে খবর দিলে দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। পরে নয়নের দেয়া তথ্য মতে বিকালে শাহিন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।

ভিক্টিম শিশুর বরাত দিয়ে গৌরীপুর থানার এসআই মাইনুল হক জানান, সোমবার রাতে ভালুকাপুর গ্রামে জিকির মাহফিলে যায় ওই শিশু। প্রথমে শাহিন মিয়া শিশুটিকে গিয়ে জিজ্ঞাসা করে, তোমার বাবা আসছে। শিশুটি বলে না, আমি একা আসছি। পরে শাহিন মিয়া শিশুকে খাওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যেতে চায়। কিন্তু শিশুটি তার সাথে যেতে অস্বীকার করে।

শিশুটি তার সাথে না যাওয়ায় নয়ন মিয়া এসে শিশুর হাত ধরে জোর করে পাশের একটি ঝোপে নিয়ে শিশুর মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। 

পরে শিশুটি রাতে বাড়িতে গিয়ে কাউকে কিছু না বলে ঘুমিয়ে পড়ে। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠলে শিশুর জামায় রক্ত দেখতে পায় তার মা। পরে মায়ের কাছে শিশুটি জানায় রাতে নয়ন মিয়া তাকে জোর করে ধরে নিয়ে ধর্ষণ করেছে।

শিশুর মা তার বাড়ির লোকজনকে জানালে মুহূর্তের মাঝে ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। পরে এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে নয়ন মিয়াকে ধরে থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে নয়ন মিয়াকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ সময় ভিক্টিম শিশুটিকে উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। 

বিষয় নিশ্চিত করে ৫ নম্বর সহনাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে। আমি ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যেন এমন ঘটনা আমার ইউনিয়নে আর না হয়।

গৌরীপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ভিক্টিম শিশু ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

তবে দুইজনকে গ্রেফতার করার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন তিনি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড