• শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ৬ বৈশাখ ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

প্রেমিকের সাথে উধাও ৩ সন্তানের জননী

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪৮

ঠাকুরগাঁও
শাহানাজ বেগম ও তার তিন সন্তান

প্রেম মানে না বয়স না মানে কোন কিছুর বাধা। সবার জীবনে প্রেম আসে। কারও আগে আর কারও পরে। প্রেমে পড়লেই বাবা, মা, স্বামী, সন্তান, পরিবার কাউকেই আর মনে থাকে না।

শুধু মনে হয় সেই প্রিয় মানুষটি। আর এই প্রিয় মানুষটিকে কাছে পেতেই সবকিছু ফেলে পাড়ি জমাতে ইচ্ছে হয় দূর অজানায়। তবে অনেকের পারিবারিক কলহের জেরেও সংসারের শান্তি চলে যেতে পারে।

এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ঠাকুরগাঁও সদরে নিশ্চিন্তপুর এলাকায়। প্রেমের টানে স্বামী-সন্তান ফেলে রেখে প্রেমিকের হাত ধরে চলে গেছেন ৩৫ বছর বয়সী তিন সন্তানের এক জননী।

১৩ দিনেও স্ত্রী শাহানাজ বেগমের খোঁজ না পেয়ে স্বামী জবায়দুর রহমান ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৫ বছর আগে জবায়দুর রহমানের সঙ্গে বিয়ে হয় শাহানাজ বেগমের। বর্তমানে তাদের ঘরে তিনটি সন্তান রয়েছে। দুই ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে বড় সাজ্জাদ হোসেন, মেজো ছেলে সোহানুর হোসেন জিহাদ ও ছোট মেয়ে সাদিয়া আক্তার জিনিয়া।

ইতোমধ্যে প্রতিবেশি সোহাগ হোসেনের সাথে তিন সন্তানের জননী শাহানাজ বেগমের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ২৮ জানুয়ারি ভুলিয়ে প্রতিবেশি সোহাগ গৃহবধু শাহানাজকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুজি করেও গৃহবধুকে আর পায়নি।

নিশ্চিন্তপুর এলাকার ভুক্তভোগী জবায়দুর রহমান বলেন, প্রতিবেশি সোহাগ আমার স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে। এখন আমরা তিনটি সন্তান তাদের মায়ের পথ চেয়ে অঝোরে চোখের পানি ফেলছে। স্ত্রীকে দ্রুত আমাদের কাছে ফিরে পেতে থানার আশ্রয় নিয়েছি।

অভিযুক্ত সোহাগের বাড়িতে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে কেউ কথা বলতে রাজি হয়নি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশিকুর রহমান বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তসহ গৃহবধূকে উদ্ধারের চেষ্টা করছি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড